1. abubakarpressjp@gmail.com : Md Abu bakar : Md Abubakar bakar
  2. sharuarpress@gmail.com : admin520 : Md Gulam sharuar
  3. : alamin328 :
  4. jewela471@gmail.com : Jewel Ahmed : Jewel Ahmed
  5. ajkershodesh@gmail.com : Mdg sharuar : Mdg sharuar
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:১৫ পূর্বাহ্ন
হেড লাইন
জগন্নাথপুর মোবাইল মার্কেটের নির্বাচন সম্পন্ন: সভাপতি মো: রুপ মিয়া ও সাধারন সম্পাদক আবু তাহের সুনামগঞ্জে অবৈধভাবে বাজান নির্মাণ করায় এলাকাবাসী মানববন্ধন জীবন পুষ্পশয্যা নয়, লক্ষ্যে স্থির থাকলে সফলতা আসবে : রহমত উল্লাহ চৌধুরী সুমন রানীগঞ্জ ফ্রেন্ডস্ ক্লাবের দুই বছর মেয়াদী কমিটি গঠন রবার্ট স্টিফেনসন স্মিথ লর্ড ব্যাডেন পাওয়েলর ১৬৭ তম জন্মবার্ষিক উদযাপন উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত কোম্পানীগঞ্জে মায়ের দুধের উপকারিতা বিষয়ে অবহিতকরণ সভা সুনামগঞ্জে লর্ড ব্যাডেন পাওয়েল’র ১৬৭ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন ইয়ুথ লিডারশীপ অ্যাওয়ার্ড এবং সেমিনারে অংশ নিতে ভারত-মালদ্বীপ যাচ্ছেন তুহিন জগন্নাথপুরে মুক্ত সমাজ কল্যাণ সংস্থার শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ বাংলাদেশের বাজারে আসছে ‘লং-লাস্টিং ভ্যালু কিং’ রিয়েলমি নোট ৫০

নবীগঞ্জের পরকিয়ার অভিযোগে তালাক দেওয়ায় প্রবাসীর পরিবারকে একাধিক মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ

  • Update Time : রবিবার, ১৫ এপ্রিল, ২০১৮
  • ২৩৯৮ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি::

নবীগঞ্জের এক দুবাই প্রবাসী তার স্ত্রীর উপর পরকিয়া অভিযোগ তুলে প্রবাস থেকে স্ত্রীকে তালাক দেয়ার ঘটনায় তালাক প্রাপ্ত স্ত্রী ক্ষেপে গিয়ে দুবাই প্রবাসী মহসিন আহমেদ ও তার ভাই বোন সহ আত্মীয় স্বজনের উপর একে একে ৪টি মামলা দায়ের করে অবশেষে ৩টি মামলা বিজ্ঞ আদালত খারিজ করে দেন বলে দাবী করেন প্রবাসীর পরিবার।

 

হয়রানির শিকার হয়ে উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের সাতাইহাল গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজের পুত্র দুবাই প্রবাসী মোঃ মহসিন আহমদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে তার একটি স্ট্যাটাসে স্থানীয় সংবাদকর্মীদের সহযোগিতা কামনা করে পত্র পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের জন্য অনুরোধ করেন। এই ঘটনায় এলাকায় তুলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

অভিযুক্ত তালাক প্রাপ্তা স্ত্রী মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল থানার মীর্জাপুর ইউনিয়নের ধোবারহাট গ্রামের মোঃ লেদু মিয়ার কন্যা লাভলী আক্তার (২৪)। প্রবাসী মহসিন আহমেদ তার এক ডিভোর্স লেটারে উল্লেখ করেন ২০১২ সালের ২৩ এপ্রিল লাভলী আক্তারকে রেজিষ্ট্রারী কাবিন মুলে ইসলামী শরাহ শরীয়তের বিধান মতে পারিবারিক ভাবে তিনি তাকে বিবাহ করেন। বিবাহের কিছু দিন পর হইতেই লাভলী আক্তার পিত্রালয়ে অবস্থান করিতে থাকেন।

 

মহসিন আহমেদ দেশে থাকাকালিন সময়ে তার স্ত্রী সম্পর্কে খোজ খবর নিয়া জানিতে পারেন, এবং মহসিন আহমেদ তার ফেইসবুক স্ট্যাটাসের একাংশে লেখেন তার স্ত্রী লাভলী আক্তার এর সাথে বিয়ের আগে তার ফুফাত ভাই মোঃ আলী হোসন বাড়ি মির্জপুর তার সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বিয়ের পরেও তাদের পরিকয়া সম্পর্ক অটুট থাকে, সে তাকে এবং তার বোন কে ফোন করে গালিগালাজ করত এবং তাদেরকে মেরে ফেলার হুমকি দিত বলেও তার স্ট্যাটাসে জানান। ডিভোর্স লেটারে আরো উল্লেখ করেন তার স্ত্রী পর পুরুষের প্রতি আসক্ত হইয়া অসামাজিক ভাবে মেলামেশা করেন, যাহা আমাদের ইসলাম ধর্মের পরিপন্থি ও আইন বিরোধী কর্মকান্ড। মহসিন আহমেদ দেশে থাকাবস্থায় তার শশুর বাড়ী থেকে স্ত্রীকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করেন। এমনকি দুবাই প্রবাসে যাওয়ার পরেও তার স্ত্রীর মোবাইলে যোগাযোগ করিয়া অসামাজিক কার্যকলাপ পরিহার করার বার বার অনুরোধ করলেও তার স্ত্রী ফিরে আসেনি।

স্থানীয় সাংবাদিকদের তিনি মোবাইল ফোনে আরো জানান তার মান সম্মান ও ইজ্জতের ভয়ে প্রবাস থেকে তার স্ত্রীকে ২০১৩ সালের ২৪ মার্চ ডাক যোগে ডিভোর্স নামা পাঠিয়ে দেন। এই ডিভোর্স নামা দেওয়ার পর ক্ষিপ্ত হয়ে তালাক প্রাপ্তা স্ত্রী লাভলী আক্তার ২০১৪ সালের ১২ অক্টোবর দুবাই প্রবাসী মহসিন আহমেদ, তার ভাই বকুল মিয়া ও তার বড় বোনকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল মৌলভীবাজার আদালতে এই মামলা দায়ের করেন। এর পর একে একে আরো ৩টি মামলা মহসিন আহমেদের আত্মীয় স্বজন, কলেজ ছাত্রী ও কোর্টের মহরীর সহ অনেককেই আসামী করেন আলোচিত লাভলী আক্তার।

 

এই ঘটনায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুল ও পানিউমদা ইউপি চেয়ারম্যান ইজাজুর রহমান সমন্বয়ে গত কয়েক মাস পূর্বে এক সামাজিক বিচারের মাধ্যমে আপোষ মিমাংশার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়, এতে সর্ব সম্মতিক্রমে দুবাই প্রবাসী মহসিন আহমেদ তার স্ত্রীকে কাবিনের দেনমোহর বাবদ ৩ লক্ষ টাকা দেওয়ার সিন্ধান্ত হয়, এবং তার স্ত্রীর দায়েরকৃত সবকটি মামলা প্রত্যাহার করার জন্য সিদ্ধান্ত হয়।। দুবাই প্রবাসী সামাজিক বিচারের রায় মতে পঞ্চায়েত পক্ষের নিকট ৩ লক্ষ টাকাও জমা দেন। কিন্তু টাকা সমজিয়ে দেওয়ার পর ও অজ্ঞাত কারণে আজবদি মামলা প্রত্যাহার করা হচ্ছে না।

 

এ ঘটনায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি শালিসের এঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমরা সামাজিক বিচারের রায় উভয় পক্ষ মেনে নিয়েছেন। শালিস পক্ষের ২/১ জন জরুরী কাজে ব্যস্ত থাকায় হয়তো বিলম্ব হচ্ছে। তিনি দাবী করেন, বিষয়টি যেহেতু মিমাংসা হয়েগেছে সেহেতু মামলাও প্রত্যাহার করা হবে।

 

এ ব্যাপারে পানিউমদা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইজাজুর রহমানের সাথে মোবাইল ফোনে একাধিবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। এই চাঞ্চল্যকর ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক ও স্থানীয় এলাকায় তুলপাড় চলছে। নিন্মে দুবাই প্রবাসীর ফেইসবুক স্ট্যাটাসের হুবহু বার্তা তুলে ধরা হলো………………………………

 

https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=446491969118718&id=100012737567701

 

 

আজকের স্বদেশ/জুয়েল

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024
Design and developed By: Syl Service BD