Logo

May 11, 2021, 11:22 am

সংবাদ শিরোনাম :

মমির গর্ভে সাতমাসের শিশু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::

মিশরীয় মমির গর্ভে পাওয়া গেলো সাতমাসের শিশু। এই প্রথম কোনো মমির গর্ভের শিশু সন্তানের অস্তিত্ব পাওয়া গেলো। প্রথমে প্রাচীন মমি পরীক্ষা করে পোলিশ গবেষকরা বলেছিলেন, এটি সম্ভবত কোনও পুরুষ পুরোহিতের মমি।

কিন্তু এটির এক্স-রে এবং কম্পিউটার পরীক্ষার পরে সম্প্রতি বিজ্ঞানীদের আশ্চর্য হওয়ার পালা। তারা দেখেন, এটি সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক নারীর মমি! গবেষকেরা জানাচ্ছেন, এটিই হল বিশ্বের প্রথম কোনও অন্তঃসত্ত্বা মহিলার মমি।

জানা গিয়েছে, মমিটি ১৮২৬ সালে ওয়ার স পৌঁছেছিল। ওই কফিনটির উপরে খোদাই করা ছিল এক পুরোহিতের নাম। নৃতত্ত্ববিদ ও প্রত্নতত্ত্ববিদ মারজেনা ওজারেক-এসজিলকে জানান, মমিটি পরীক্ষা করতে গিয়ে দেখি সেটির কোনও পুরুষাঙ্গ নেই! এদিকে স্তন আছে এবং লম্বা চুল। এবং তখনই আমরা আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে নিশ্চিত হই, এটি কোনও মহিলার মমি। এবং তিনি অন্তঃসত্ত্বা!

 

 

তাদের অনুমান, ওই মিশরীয় নারীর বয়স ২০-৩০ বছরের মধ্যে। গর্ভস্থ শিশুর করোটি পরীক্ষা করে তাদের মনে হচ্ছে, এর বয়স ২৬-২৮ সপ্তাহের মতো।

 

 

জার্নাল অব আর্কিওলজিক্যাল সায়েন্স এ সংক্রান্ত গবেষণাপত্রটি বেরিয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, এই মমিটি থেকে প্রাচীন মিশরে অন্তঃসত্ত্বা মহিলাদের কী ধরনের চিকিৎসা দেওয়া হত, তার একটা আন্দাজ পাওয়া যাবে।

 

 

 

 

আজকের স্বদেশ/এবি