1. abubakarpressjp@gmail.com : Md Abu bakar : Md Abubakar bakar
  2. sharuarpress@gmail.com : admin520 : Md Gulam sharuar
  3. : alamin328 :
  4. jewela471@gmail.com : Jewel Ahmed : Jewel Ahmed
  5. ajkershodesh@gmail.com : Mdg sharuar : Mdg sharuar
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০২:৪৪ পূর্বাহ্ন

দোয়ারায় হাতুড়ে ডাক্তারের ভূল অপারেশনে মৃত্যু পথযাত্রী রঞ্জিত বিশ্বাস

  • Update Time : সোমবার, ২৩ এপ্রিল, ২০১৮
  • ১২৮৩ শেয়ার হয়েছে

দোয়ারা বাজার প্রতিনিধিঃ

সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারাবাজার উপজেলার মান্নারগাঁও ইউপির আজমপুর গ্রামের সুধির বিশ্বাসের পুত্র রঞ্জিত বিশ্বাস (৩৮) তার পুরুষ লিঙ্গে সমস্যা দেখা দিলে ডাক্তারি পরামর্শের জন্য দোয়ারাবাজার সদর পশ্চিম বাজার তামান্না ফার্মেসীর মালিক জামল উদ্দিন ডাক্তারের কাছে যান।

সে তাকে লিঙ্গ অপারেশনের কথা বলে, দুদিন পর জামাল ডাক্তার নিজেই রঞ্জিতের পুরুষ লিঙ্গ অপারেশন করে। অপারেশনের পর লিঙ্গ না শুকিয়ে ক্ষতও ইনফেকশনের স্থানে পচন দেখা দেয়। জামাল ডাক্তার লিঙ্গের অবস্থার অবনতি দেখে রঞ্জিত বিশ্বাস কে সুনামগঞ্জ যেতে বলে। সুনামগঞ্জ মেডিকেল অফিসার তাকে সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কথা বললে রঞ্জিত বিশ্বাস মানুষের কাছে ধার দেনা করে টাকা নিয়ে ওসমানিতে ভর্তি হয়।

সেখানে চিকিৎসায় ও উন্নতি না হলে এবং পচন বাড়তে থাকলে ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্য রত ডাক্তারগণ নিবির পর্যবেক্ষনের মাধ্যমে দেখা যায় লিঙ্গ কেটে না ফেললে পচন ভিতরে ডুকতে পারে রোগি বাছার সম্ভবনা থাকে না। তাই রঞ্জিতের সাথে আলোচনা করে মেডিকেল কর্তৃপক্ষ ১০ই এপ্রিল দ্বিতীয় অপারেশনের মাধ্যমে তার সম্পুন্ন লিঙ্গ কেটে ফেলে।

এব্যপারে আজমপুর গ্রামের মমশর আলী বলেন, জামাল উদ্দিন ডাক্তার ভুজনা গ্রামের আব্দুল হাসিম ফকিরের ছেলে। অল্প দিনে দোয়ারা বাজার সদর পশ্চিম বাজারে তামান্না ফার্মেসী দিয়ে কোটিপতি হয়েছে। কাইলাকান্দি শান্তিপুর, টেংরা রোর্ডের পাশে বিশাল বড় ফ্লাট বাড়ি নির্মান করে। রাস্তার পাশে দ্বিতীয় তামান্না ফার্মেসী নির্মান, বাড়ির পাশে বিশাল বড় পুকুর নির্মান। নামে বে নামে জমি ক্রয় গ্রামের সাধারণ মানুষের কাছে নিম্ন মানের ঔষদ বিক্রি ও জ্বাল বেজাল চিকিৎসা দিয়ে টাকার পাহাড় গড়েছে। তামান্না ফার্মেসীর সাইন বোর্ডে হরেক রকম ডিগ্রী লাগিয়ে সাধারন মানুষের দৃষ্টি আকর্ষন করে প্রতারনার জাল তৈরী করেছে।
মৃত্যু পথযাত্রী রঞ্জিত বিশ্বাস প্রতিনিধিকে জানান, জামাল উদ্দিন যে কেমন ডাক্তার আমার জানা ছিল না, আমি ভাবতাম সরকারি এম বি বি এস পাশ করা ডাক্তার এজন্য তার কাছে আসি। আজ আমি মৃত্যুর পথযাত্রী, আমার তিন সন্তান ও স্ত্রী রয়েছে। আমার জায়গা জমি ও অর্থ সম্ভল কিছু নাই। আমার জীবন শেষ তবু বাছার আকুতি।বেছে থাকার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। সঠিক ভাবে চিকিৎসা না করাতে পারলে মৃত্যুর হুমকি রয়েছে। টাকার অভাবে মেডিকেলে বেশিদিন থাকতে পারিনা। দিন মজুর কিভাবে চিকিৎসার টাকা পাই কি করে ছেলে মেয়ের ভাত খাওয়াই।

এ ব্যাপারে ডাক্তার জামাল উদ্দিন  বলেন, আমি খতনা করেছি তবে তার আগেই সমস্যা ছিল।

আজকের স্বদেশ/জুয়েল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024
Design and developed By: Syl Service BD