1. abubakarpressjp@gmail.com : Md Abu bakar : Md Abubakar bakar
  2. sharuarpress@gmail.com : admin520 : Md Gulam sharuar
  3. : alamin328 :
  4. jewela471@gmail.com : Jewel Ahmed : Jewel Ahmed
  5. ajkershodesh@gmail.com : Mdg sharuar : Mdg sharuar
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৮:৫০ অপরাহ্ন
হেড লাইন
জগন্নাথপুরে ঈদুল আজহা উপলক্ষে হত-দরিদ্রের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সাবেক মন্ত্রী ইমরান আহমদের পক্ষ থেকে গোয়াইনঘাটে ঈদ উপহার বিতরণ জগন্নাথপুর থানার ওসির উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ পাহাড়ি ঢলে বাড়ছে সুনামগঞ্জের ২৬ নদীর পানি বন্যার আশংকা জগন্নাথপুরে ঈদুল আজহা উপলক্ষে ফ্রেন্ডস্ ক্লাবের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ বিশ্বনাথ মডেল প্রেসক্লাবের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান সোহেল চৌধুরীর মতবিনিময় সুনামগঞ্জে বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রানীগঞ্জ ইউনিয়ন ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন নর্থ-ওয়েষ্ট ইউকে’র অর্থায়নে নগদ অর্থ বিতরণ জগন্নাথপুরে ২০টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার ঘর পেল কোরবানী ঈদকে সামনে রেখে নবীগঞ্জে জমে উঠেছে পশুর হাট

নবীগঞ্জের জায়গা জবর দখলের অভিযোগ: রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা

  • Update Time : সোমবার, ৯ এপ্রিল, ২০১৮
  • ১৪৭৯ শেয়ার হয়েছে

এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে

বিশেষ প্রতিনিধি::

বিজ্ঞ আদালতে মামলা ও থানায় জিডি করেও প্রভাবশালী চেয়ারম্যান, মেম্বার সহ তাদের দলবলের জবর দখল ও মাঠি কাটার কাজ আটকানো গেলনা! প্রশাসনকে বৃদ্ধাগুলি প্রদর্শন করে থানা পুলিশের নিষেধ অমান্য করে লক্ষ লক্ষ টাকার জায়গা জোর পূর্বক দখল করার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। নবীগঞ্জ থানার আউশকান্দি ইউনিয়নের বহুল বির্তকিত চেয়ারম্যান লন্ডন প্রবাসী মুহিবুর রহমান হারুনের বিরুদ্ধে।

 

এ ঘটনায় আউশকান্দি এলাকায় সচেতন মহলে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা ও তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এই জায়গা জবর দখল নিয়ে যেকোন সময় রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষের আশংকা করছেন স্থানীয় লোকজন। মামলার এজাহারে উল্লেখ ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের শাহপুর মৌজাধীন হাতিমারা নদীর দক্ষিনে উলুকান্দি হাওরের পশ্চিমে একটি মনির অটো ব্রিকস্ ফিল্ডের নিজস্ব প্রয়োজনে মালিক পক্ষ হইতে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ভূমির মালিকদের জায়গা জমি অধিগ্রহন না করেই জোর পূর্বক আমন জমির উপর দিয়ে রাস্তা নির্মানের কাজে মরিয়া হয়ে ওঠে মনির অটো ব্রিকস্ ফিল্ডের কর্তৃপক্ষ।

 

সম্প্রতি, আউশকান্দি ইউনিয়নের শাহপুর মৌজার অর্ন্তভূক্ত আমুকোনা ও বেতাপুর গ্রামের লোকজনের জমির উপর দিয়ে বরাক নদীর নিকটবর্তী স্থান দিয়ে একই কায়দায় জোর পূর্বক জমি দখল করে অটো ব্রিকস্ ফিল্ডের নিজস্ব প্রয়োজনে রাস্তা নির্মানে উল্লেখিত দুই গ্রামের লোকজনের তীব্র প্রতিবাদ ও বাধারমূখে রাস্তা নির্মান না করে নতুন কৌশল অবলম্বন করে ব্রিকস্ ফিল্ড কর্তৃপক্ষ। নানা অপ-কৌশল করে স্থানীয় ইউপি চেয়ারাম্যান বহুল বির্তকিত মুহিবুর রহমান হারুন এর সাথে আতাত করে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে চুক্তি করে উল্লেখিত মৌজাধীন জে,এল, নং ১২৬, খতিয়ান নং ১৭, সাবেক দাগ ৯০, হাল দাগ ৩৪, এরিয়া ১.৫ একর, খতিয়ান নং ৪২, সাবেক দাগ ৯০, হাল দাগ ৩৪, এরিয়া ১.০৫ শতক।

 

এই মালিকানা ভূমির মালিকদের সাথে কোন কথাবার্তা অথবা জমি অধিগ্রহন না করেই জবর দখল মিশনে অটো ব্রিকস্ ফিল্ডের পক্ষে রাস্তায় মাঠি কাটার কাজ শুরু করেন ৫নং আউশকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মিনাজপুর গ্রামের মৃত হাজী এখলাচুর রহমানের পুত্র মুহিবুর রহমান হারুন ও একই ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড মেম্বার রায়পুর গ্রামের মৃত রমিজ আলীর পুত্র মোঃ উস্তার মিয়া ও তাদের দলবল।

 

এ ঘটনায় জমির মালিক পক্ষ আউশকান্দি ইউনিয়নের বেতাপুর গ্রামের ও আউশকান্দি বাজারের ব্যবসায়ী হাজী শাহ মুস্তাকিম আলী প্রিন্স বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় উল্লেখিত চেয়ারম্যান ও মেম্বারের নাম উল্লেখ করে গত ৭ এপ্রিল একটি জিডি দায়ের করলে জিডি নং ৩৬৮/৭/৪/২০১৮ইংরেজী। এরই প্রেক্ষিতে নবীগঞ্জ থানার এস আই পলাশ বাবু একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে চেয়ারম্যান হারুন ও উস্তার মেম্বারকে নিষেধ করেন। কিন্তু পুলিশ ঘটনাস্থল ত্যাগ করা মাত্রই ঐ প্রভাবশালী হারুন চেয়ারম্যান ও মেম্বার উস্তার মিয়া তাদের দলবল নিয়ে মাঠি কাটার কাজ শুরু করে। এতে মালিক পক্ষ আবার বাধা দিলেও কোন কাজ হয়নি। গত ফেব্রুয়ারী মাসের ২৭ তারিখ ঐ সমালোচিত চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুন ও মেম্বার উস্তার মিয়ার বিরুদ্ধে সহকারী জজ আদালত নবীগঞ্জ হবিগঞ্জে স্বত্ত মোকদ্দমা নং ২৬/২০১৮ দায়ের করিলে বিজ্ঞ আদালত গত ২৮/০২/২০১৮ইংরেজী তারিখের আর্দেশে মালিকপক্ষের ভোগ দখলীয় নিন্ম তফশীল বর্নিত জায়গার উপর দিয়ে কোন প্রকার রাস্তা নির্মান না করার জন্য আর্দেশ প্রদান করেন। এই আর্দেশ অমান্য করে গত ৭ এপ্রিল সকাল অনুমান ১০ঘটিকা হইতে মাঠি ভরাট কাজ শুরু করেন।

 

এতে মালিক পক্ষের লোকজন বাধা নিষেধ করলেও প্রভাবশালীরা অমান্য করায় নবীগঞ্জ থানা পুলিশের দ্বারস্থ হন জমির মালিকগণ। এতেও কাজ হয়নি! সচেতন মহলের প্রশ্ন হারুন চেয়ারম্যানের খুটির জোর কোথায়? এ ঘটনায় এলাকায় টানাটান উত্তেজনা বিরাজ করছে।যেকোন সময় বড় ধরনের রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষের আশংখা করছেন স্থানীয়রা।

এ ব্যাপারে আউশকান্দি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাজী মুহিবুর রহমান হারুনের সাথে মোবাইল নাম্বারে বারবার যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরেন নি।

 

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার এস আই পলাশ চন্দ্র দাশ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, জিডির প্রেক্ষিতে আমি তদন্ত করে নিষেধাজ্ঞা করে আসি। তবে, যেহেতু ভূমি সংক্রান্ত ব্যাপার সেহেতু আদালতের নির্দেশ পেলেই আমরা ব্যবস্থা নিতে পারব।

 

 

আজকের স্বদেশ/জুয়েল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024
Design and developed By: Syl Service BD