Logo

April 10, 2021, 10:46 pm

সংবাদ শিরোনাম :
«» প্রেমিকের সঙ্গে স্ত্রীকে বিয়ে দিলেন স্বামী «» সরকারের কারণেই করোনা বেড়ে গেছে: ফখরুল «» দ. সুনামগঞ্জে হাজী সায়েস্তা খাঁন ও মাহদী চ্যারিটেবল ট্রাস্ট‘র উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ «» সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের উদ্যোগে মাস্ক ও হেন্ড সেনিটাইজার বিতরণ «» দ. সুনামগঞ্জে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে আমানাহ এইড «» বিশিষ্ট সাংবাদিক হাসান শাহারিয়ার মৃত্যুতে সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের শোক প্রকাশ «» বাহুবলে এম পি মিলাদ গাজীর সুস্হতা কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত «» যাদুকাটা নদীর পাড়ে জব্দকৃত বালু-পাথর নিলামে বিক্রি করার দাবী স্থানীয়দের «» জগন্নাথপুরে ১৫০টি পরিবারের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণ «» একদিনে সর্বোচ্চ ৭৭ জনের মৃত্যুর রেকর্ড

নবীগঞ্জে বিএনপি নেতা নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে জলমহাল নিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ !

বিশেষ প্রতিনিধি::

নবীগঞ্জ পৌর বিএনপি নেতা নুরুল আমিনকে চাদাঁ না দেয়ায় প্রতিপক্ষের লোকজনকে হত্যার হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে ভুক্তভোগী রিয়াজুল হক রাজু বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়- উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের পুরষোত্তমপুর জলচর মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির সভাপতি হিসেবে রিয়াজুল হক রাজু দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তিনি গত ১ বছর যাবত সর্দারপুর মৌজার ভান্ডাভান্ডি জলমহাল নীতিমালা অনুসারে লীজের মাধ্যমে ভোগ করে আসছেন তিনি। জলমহালকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে নবীগঞ্জ পৌর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক নুরুল আমিন নানাভাবে রিয়াজুল হক রাজুকে হুমকি দিয়ে আসছে। গত ৩ এপ্রিল ১ লাখ ২০ হাজার টাকা না দিলে জলমহাল ভোগ করতে দিবেনা বলে হুংকার দেয় এবং এক পর্যায়ে রাজুকে প্রাণনাশের হুমকি দেয় নুরুল আমিন।

 

 

গত ৪ এপ্রিল নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সামনে রাজু ও তার পিতা শাহজাহান মিয়াকে পুনরায় বিএনপি নেতা নুরুল আমিনসহ ৩জন অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে প্রাণে হত্যার উদ্দেম্যে নুরুল আমিন এগিয়ে আসলে রাজু ও তার পিতা দৌড়ে পালিয়ে আত্মরক্ষা করেন। এঘটনার প্রতিকার চেয়ে গত ৫ এপ্রিল নবীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী রাজু।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

এছাড়াও নবীগঞ্জ পৌর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে সরকারী দলের নেতাদের সাথে যোগসাজসের মাধ্যমে উপজেলার বিভিন্ন জলমহাল নিয়ে বিগত সময়েও চাদাঁবাজির অভিযোগ রয়েছে এবং সংশ্লিস্ট কর্মকর্তারা তার তদবিরে অতিষ্ঠ বলে জানা গেছে। বিভিন্নস্থানে নুরুল আমিন উপজেলা চেয়ারম্যানের ঘনিষ্ঠভাজন হিসেবে পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন কর্মকর্তা ও সর্বসাধরণকে বিভ্রান্ত করে আসছে।

 

 

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ডালিম আহমদ বলেন, এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের স্বদেশ/জে.এম