Logo

April 10, 2021, 9:18 pm

সংবাদ শিরোনাম :
«» প্রেমিকের সঙ্গে স্ত্রীকে বিয়ে দিলেন স্বামী «» সরকারের কারণেই করোনা বেড়ে গেছে: ফখরুল «» দ. সুনামগঞ্জে হাজী সায়েস্তা খাঁন ও মাহদী চ্যারিটেবল ট্রাস্ট‘র উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ «» সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের উদ্যোগে মাস্ক ও হেন্ড সেনিটাইজার বিতরণ «» দ. সুনামগঞ্জে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে আমানাহ এইড «» বিশিষ্ট সাংবাদিক হাসান শাহারিয়ার মৃত্যুতে সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের শোক প্রকাশ «» বাহুবলে এম পি মিলাদ গাজীর সুস্হতা কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত «» যাদুকাটা নদীর পাড়ে জব্দকৃত বালু-পাথর নিলামে বিক্রি করার দাবী স্থানীয়দের «» জগন্নাথপুরে ১৫০টি পরিবারের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণ «» একদিনে সর্বোচ্চ ৭৭ জনের মৃত্যুর রেকর্ড

তিন ভাইকে পাশে বসিয়ে লাইভে যা বললেন মামুনুল হক (ভিডিও)

আজকের স্বদেশ ডেস্ক::

সোনারগাঁয়ের রয়েল রিসোর্টে থাকা ওই নারীর স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়ার পর তাকে বিয়ে করেছেন বলে দাবি করেছেন হেফাজত নেতা মামুনুল হক। ওই নারীর আগের স্বামী মামুনুল হকের ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলেন।

শনিবার রাত ১০ টার পর ফেসবুক লাইভে এসে মামুনুল হক দাবি করেন, ওই নারীর স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়ার পর তিনি তাকে বিয়ে করেছেন। এ সময় মামুনুলের সঙ্গে তার তিন ভাই উপস্থিত ছিলেন।

লাইভে দেওয়া বক্তব্যে সমর্থকদের উত্তেজনা না ছড়িয়ে শান্ত থাকার আহ্বান জানান তিনি।

 

মামুনুল হক বলেন, টানা পরিশ্রমের কারণে আমার একটু বিশ্রামের প্রয়োজন ছিল। এ কারণে আজ সেখানে গিয়েছিলাম। সঙ্গে আমার দ্বিতীয় স্ত্রী ছিল। পুলিশ আমার থেকে যাবতীয় তথ্য নিয়ে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েছে। আমার দ্বিতীয় স্ত্রী আমার এক ঘনিষ্ঠ বন্ধুর সাবেক স্ত্রী ছিলেন। তাদের দুটি সন্তানও আছে। এরপর পারিবারিকভাবে আমি তাকে বিয়ে করি।

 

ঘটনার বিবরণ দিয়ে মামুন বলেন, সেখানে স্থানীয় কিছু সংবাদকর্মীদের সঙ্গে কিছু যুবলীগ ও সরকারদলীয় লোক আমার সঙ্গে খারাপ আচরণ করেছেন। তারা লাইভ ভিডিওর মাধ্যমে হামলা ও আক্রমণ করেছেন। দেশের মানুষ আমার বক্তব্য সেখানেও শুনেছে ও দেখেছে।

 

এরপর সেসব ভিডিও ভাইরাল হয়ে যাওয়ায় স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা ওই রিসোর্টে এসে আমাকে উদ্ধার করে। তারা উত্তেজিত হয়ে পড়ে। আমি জনতাকে শান্ত করি ও তাদের নিয়ে স্থান ত্যাগ করি। আমি আহবান করবো এই বিষয় নিয়ে কেউ বিভ্রান্তি ছড়াবেন না। সবাই শান্ত থাকুন। জানমালের ক্ষতি হয় এমন কোনো কাজ করবেন না। এটাই আমার অফিসিয়াল বক্তব্য।

এ সময় মামুনুল হকের সঙ্গে ছিলেন তার বড় ভাই হাফেজ মাহমুদ, হাফেজ মাহবুব ও মাওলানা মাহফুজুল হক।

আজকের স্বদেশ/তালুকদার