Logo

April 10, 2021, 9:58 pm

সংবাদ শিরোনাম :
«» প্রেমিকের সঙ্গে স্ত্রীকে বিয়ে দিলেন স্বামী «» সরকারের কারণেই করোনা বেড়ে গেছে: ফখরুল «» দ. সুনামগঞ্জে হাজী সায়েস্তা খাঁন ও মাহদী চ্যারিটেবল ট্রাস্ট‘র উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ «» সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের উদ্যোগে মাস্ক ও হেন্ড সেনিটাইজার বিতরণ «» দ. সুনামগঞ্জে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে আমানাহ এইড «» বিশিষ্ট সাংবাদিক হাসান শাহারিয়ার মৃত্যুতে সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের শোক প্রকাশ «» বাহুবলে এম পি মিলাদ গাজীর সুস্হতা কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত «» যাদুকাটা নদীর পাড়ে জব্দকৃত বালু-পাথর নিলামে বিক্রি করার দাবী স্থানীয়দের «» জগন্নাথপুরে ১৫০টি পরিবারের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণ «» একদিনে সর্বোচ্চ ৭৭ জনের মৃত্যুর রেকর্ড

পরশুরামে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত দোকান পরিদর্শন করেন পৌর মেয়র সাজেল চৌধুরী

পেয়ার আহাম্মদ চৌধুরীঃ

ফেনীর পরশুরাম বাজারে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ দোকান পরিদর্শন করেন পরশুরাম পৌরসভার মেয়ের নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেল ও অত্র ওয়ার্ড (সদর) এর কাউন্সিলর এনামুল হক এনাম।

 

এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য এম. সফিকুল হোসেন মহিম, বক্সমাহমুদ ইউনিয়ন পরিষদ  সদস্য মোঃ ইসমাইল হোসেন, পরশুরাম উপজেলা  বিআরডিবি চেয়ারম্যান ইয়াছিন শরিফ মজুমদার, উপজেলা কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতির সভাপতি একরামুল হক চৌধুরী পিয়াস।  দোকান পরিদর্শন কালে ক্ষতিগ্রস্ত দোকান মালিক দের পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন মেয়র সাজেল চৌধুরী।

 

 

 

 

 

রবিবার (৭ মার্চ) রাত ১১ টা পরশুরাম বাজারের জামান প্লাজা সংলগ্ন স্টেশন রোডে চৌধুরী এন্টারপ্রাইজ, কাজী মেটাল ও ঝুমুর ট্রেডার্সে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।  ফায়ার সার্ভিস এর ২ টি ইউনিট সহ স্হানীয়রা ঘণ্টাব্যাপী প্রচেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। অগ্নিকান্ডে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৩০ লাখ টাকা। সর্বশান্ত হয়ে গেছে ব্যবসায়ীরা। আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে তাদের স্বপ্ন জানান ব্যবসায়ীরা।

 

 

 

 

 

 

 

ক্ষতিগ্রস্থ কাজী মেটাল এর স্বত্বাধিকারী কাজী জাহাঙ্গীর আলম জানান, এই ব্যবসা ছিলো তার জীবনের বড় শক্তি,আয়ের মুল উৎস। কিভাবে আগুন লেগেছে তিনি জানেনা। রাত ১১.৩০ টার সময় মোবাইলে কল পেয়ে আসেন এসে দেখেন ভয়াবহ আগুন। তার দোকানে প্রায় ১০ লক্ষ টাকার লোকসান হয়েছে। করোনা কালিন ব্যবসায়ের অবস্থা ছিলো খুব খারাপ। যখন কাটিয়ে উঠার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। তখনই আগুনে পুড়ে সব শেষ করে দিলো।

 

 

 

 

 

 

চৌধুরী এন্টারপ্রাইজ এর স্বত্বাধিকারী রতন চৌধুরী জানান, শুরুতে তার দোকানে আগুন লাগায় নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়নি। প্রায় ২০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।  একদিকে করোনা কারনে ব্যবসা বানিজ্য করা সম্ভব হয়নি করোনার রেশ কাটার আগেই  আগুনে সব শেষ কেড়ে নিলো।  সামনে ঠিকে থাকাটা হবে অনেক কষ্টের।

 

 

 

 

আজকের স্বদেশ/তালুকদার