Logo

March 4, 2021, 11:48 am

সংবাদ শিরোনাম :
«» ‘করোনা অগ্রযাত্রা থামাতে পারে নাই, আর কেউ পারবে না’ «» নাসিরের স্ত্রী তামিমার সাবেক স্বামীর হাইকোর্টে রিট «» ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় «» এইচ টি ইমামের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক «» এইচ টি ইমাম ইন্তেকাল করেছেন «» পরিবারকে ভয় দেখাতে বিষপান, প্রাণ গেল দু’বোনের «» বর নিয়ে স্কুটি চালিয়ে শ্বশুরবাড়ি গেলেন নববধূ (ভিডিও) «» জগন্নাথপুরে স্বাধীনতার ৫০ বছর উপলক্ষে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ডে-মিনি ফুটবল টুর্নামেন্ট «» ‘বিএনপির দলাদলি-নেতিবাচক রাজনীতি না থাকলে দেশ আরো এগিয়ে যেত’ «» অ্যাড. বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু’র মৃত্যুতে সুনামগঞ্জ গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতির শোকসভায় বক্তারা তিনি নতুনদের আগলে রাখতেন মমতা দিয়ে

আনুষ্ঠানিকভাবে রাজ্জাক-নাফিসের অবসর গ্রহণ

স্পোর্টস ডেস্ক::

আনুষ্ঠানিকভাবে খেলোয়াড়ি জীবনের ইতি টানলেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের দুই তারকা আব্দুর রাজ্জাক ও শাহরিয়ার নাফিস। শনিবার মিরপুরে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তাদের বিদায়ী সংবর্ধনা দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

খেলোয়াড়ি জীবন শেষ করলেও তারা দুজন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গেই যুক্ত থাকবেন। সম্প্রতি আব্দুর রাজ্জাককে নির্বাচক প্যানেলে নিয়োগ দিয়েছে বিসিবি। অন্যদিকে, এখনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না এলেও শাহরিয়ার নাফিসও বিসিবির একটি গুরুত্বপূর্ণ পদের দায়িত্ব পেতে চলেছেন। বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটিতে তাকে দায়িত্ব দিতে চলেছে বিসিবি।

বিদায়বেলায় আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘প্রত্যেকটি জিনিসের শেষ আছে। শেষ করতে হবে। আমাদের জায়গাতে অন্য কেউ আসবে। তাদেরকে জায়গা করে দিতে হবে। তাদের যদি কোনো সাহায্যের প্রয়োজন হয় সেটিও আমাদের করতে হবে। খুব বেশি কিছু বলা আমার জন্য কঠিন। কারণ, এটি আমার জন্য বিশাল একটি সিদ্ধান্ত। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।’

শাহরিয়ার নাফিস বলেন, ‘মহান আল্লাহ তায়ালার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা। কারণ, আমি গর্বের সাথে বলতে পারি যে, আমি বাংলাদেশ দলের হয়ে ক্রিকেট খেলেছি। আমার বাবা-মায়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা। কারণ, আমার বয়স যখন ১০ বছর তখন আমি ক্রিকেট খেলার সিদ্ধান্ত নেই এবং তারা আমাকে সমর্থন দিয়েছেন। ক্যারিয়ারে আমি মানুষের কাছ থেকে প্রচুর ভালোবাসা পেয়েছি। এমন একটি পরিবেশে বিদায় দেয়ার জন্য বিসিবিকে ধন্যবাদ।’

বাংলাদেশ দলের হয়ে আব্দুর রাজ্জাক ১৩টি টেস্ট, ১৫৩টি ওয়ানডে ও ৩৪টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। ২০০৪ সালের ১৬ জুলাই হংকংয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে তার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়। ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ খেলেন তিনি।

অন্যদিকে, শাহরিয়ার নাফিস তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ২৪টি টেস্ট, ৭৫টি ওয়ানডে ও ১টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। ২০০৫ সালের জুনে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচের মাধ্যমে তার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়। ২০১৩ সালের এপ্রিলে ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ খেলেন তিনি।

 

 

 

আজকের স্বদেশ/এবি