Logo

December 3, 2020, 2:32 pm

সংবাদ শিরোনাম :
«» স্থানীয় পর্যায়ে টেকসই উন্নয়নের লক্ষে কানাইঘাটে অভিষ্ট বাস্তবায়ন কর্মশালা সম্পন্ন «» পরকীয়ায় প্রবাসী স্বামীকে হত্যায় স্ত্রীসহ ৫ জনের ফাঁসি «» কায়স্থগ্রাম সবজিগ্রাম সমিতির টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ «» সংশোধিত কাবিটা নীতিমালা ২০১৭ অনুযায়ী কাবিটা স্কিম প্রনয়ন ও বাস্তবায়ন সংক্রান্ত জেলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত «» ছাতকে ইউপি চেয়ারম্যান গয়াছ আহমদের মতবিনিময় «» সুনামগঞ্জ-মঙ্গলকাটা রাস্তা মেরামতের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করলেন পীর মিসবাহ «» জগন্নাথপুরে প্রথমবারের মত ভোট হবে ইভিএমে «» এ বছর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাচ্ছেন যারা «» শেরপুর পুলিশ ফাঁড়ির তত্বাবধানে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ «» এমসি কলেজে গণধর্ষণ : ৮ ছাত্রলীগ কর্মীকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ : ১০ দিনে চট্টগ্রামে শনাক্ত দেড় হাজার

আজ‌কের স্ব‌দেশ ডেস্ক:

শীতের সময় দেশে করোনাভাইরাসের আরেক দফা সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কা শুরু থেকেই করা হচ্ছিল। সেই শঙ্কা বাস্তব করে গত কিছুদিন ধরে নতুন সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যাও বৃদ্ধি পেতে দেখা যাচ্ছে। নভেম্বরের শুরু থেকেই দেশে শীতের আবহ তৈরি হয়েছে, বিশেষ করে গত ১০ দিনে চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।

 

 

 

 

 

চট্টগ্রামের স্বাস্থ্যবিভাগ থেকে পাওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, গত ১১ থেকে ২০ নভেম্বর- এই ১০ দিনে চট্টগ্রামে মোট এক হাজার ৪৪৯ জন নতুন করে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। আশঙ্কার দিক হলো এর মধ্যে এক হাজার ১৪২ জনই চট্টগ্রাম নগরের বাসিন্দা। বাকি ৩০৭ জন জেলার ১৫ উপজেলার বাসিন্দা বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্যবিভাগ। এই সময়ের মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন চারজন।

 

এই ১০ দিনের মধ্যে গত বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) দ্বিতীয় দফায় সর্বোচ্চ ১৯৭ জন ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হন। সবচেয়ে কম ৬৩ জনের করোনা শনাক্ত হয় গত ১৪ নভেম্বর। এছাড়া গতকাল শুক্রবার (২০ নভেম্বর) চট্টগ্রামে এক হাজার ৬৭টি নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে করোনাভাইরাস সংক্রমিত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১৪৫ জন। ১৮ নভেম্বর এ সংখ্যা ছিল ১৬১, ১৭ নভেম্বর ১৭৮, ১৬ নভেম্বর ১৫৭, ১৫ নভেম্বর ১৮১, ১৩ নভেম্বর ১৮৬, ১২ নভেম্বর ১০৮ ও ১১ নভেম্বর করোনা শনাক্ত হয় ১১৩ জনের।

 

 

 

 

 

 

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন শেখ ফজলে রাব্বি বলেন, ‘করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ইতোমধ্যেই আমাদের সমাজে প্রভাব ফেলতে শুরু করেছে। শহরাঞ্চলে মানুষ খুব বেশি সংখ্যায় আক্রান্ত হচ্ছেন। গ্রামে পরীক্ষার প্রবণতা কম থাকায় সঠিক চিত্রটা হয়তো আমরা পাচ্ছি না।’