Logo

November 23, 2020, 5:26 pm

সংবাদ শিরোনাম :
«» কুয়ায় পড়া হাতিটি উদ্ধার হলো যেভাবে (ভিডিও) «» ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘নিভার’, বাংলাদেশে প্রভাব পড়বে? «» করোনা থেকে সচেতন করতে কানাইঘাটে আলেমদের নিয়ে মতবিনিময় «» নবীগঞ্জে ইভটিজিং নারী ও শিশু নির্যাতন ধর্ষণ প্রতিরোধে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» যার যে রোল নম্বর আছে, সেই রোল নম্বর নিয়েই পরের শ্রেণিতে উঠবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা «» দোয়ারাবাজারে ইউপি নির্বাচনের হাওয়ায় তৎপর প্রার্থীরা «» মানুষের স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নে নতুন মাত্রা কৈতক ট্রমা সেন্টার -মুহিবুর রহমান মানিক এমপি «» জামালগঞ্জে ইফার মাসিক সমন্বয় সভা সম্পন্ন «» মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতে কঠোর হতে বললেন প্রধানমন্ত্রী «» ছাতকে কৈতক ট্রমা সেন্টার নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন এমপি মানিক

চার সরকারি সংস্থা বিক্রি করে দিচ্ছে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::

করোনার ধাক্কায় বিপর্যস্ত ভারত। অর্থনীতি যখন ভঙ্গুর অবস্থা তখন খবর এলো চার সরকারি সংস্থা বিক্রি করে দেয়ার। আগামী মাসে চারটি প্রধান রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানি (পিএসইউ) বিক্রির পরিকল্পনা করছে দেশটি।

ভারত পেট্রোলিয়াম (বিপিসিএল), শিপিং করপোরেশন (এসসিআই), কনটেইনার করপোরেশন (কনকর) ও বিইএমএল নভেম্বরের শেষের দিকে তোলা হবে নিলামে। এ তথ্য জানিয়েছে বিজনেস টুডে।

২০২০-২১ অর্থবছরে বিলগ্নীকরণের মাধ্যমে মোট ২ লাখ ১০ হাজার কোটি রুপি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা হাতে নিয়েছে বিজেপি সরকার। বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার কৌশলগত  বিলগ্নীকরণে এবার মরিয়া প্রয়াস চালাচ্ছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। কিন্তু নভেল করোনাভাইরাস মহামারি ও লকডাউন সরকারের সব ভাবনা ওলটপালট করে দিয়েছে। তার মধ্যে কর থেকে প্রাপ্ত আয়ে প্রভাব পড়ায় রাজকোষে টানাটানি পড়েছে। সরকারের রাজস্ব ঘাটতি আকাশছোঁয়া। এ পরিস্থিতিতে আর কালবিলম্বে রাজি নন অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্তাব্যক্তিরা। সূত্রের খবর, পূজার উৎসব পর্ব মিটলেই  মোট চারটি লাভজনক প্রক্রিয়ার বিলগ্নীকরণের কাজ শুরু হয়ে যাবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, আগামী মাসে ভারত পেট্রোলিয়াম করপোরেশন লিমিটেড (বিপিসিএল), শিপিং করপোরেশন (এসসিআই), কনটেইনার করপোরেশন (কনকর) এবং বিইএমএলের নিলাম ও আগ্রহপত্র আহ্বানের মাধ্যমে বিলগ্নীকরণের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হতে যাচ্ছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় প্রাথমিক খসড়া তৈরি করে  ফেলেছে কেন্দ্রীয় সরকারের ডিপার্টমেন্ট অব ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড পাবলিক অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট (ডিপাম)। এ চার সংস্থার বর্তমানে যা শেয়ারমূল্য, তাতে বিলগ্নীকরণের মাধ্যমে অন্তত ৪৯ হাজার কোটি রুপি সরকারের ঘরে ঢুকবে বলে আশা গোটা প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত কর্তাব্যক্তিদের।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

এদিকে, এপ্রিল থেকে জুন এই তিন মাসে বা প্রথম আর্থিক কোয়ার্টারে জিডিপি-র সংকোচন হয়েছে ২৩ দশমিক নয় শতাংশ। জাতীয় পরিসংখ্যান দফতর এই হিসাব দিয়েছে। গত ৪০ বছরে জিডিপির এতটা সংকোচন কখনো হয়নি। এই সব আর্থিক শব্দাবলী অনেক সময়ই সাধারণ মানুষ বুঝতে পারেন না। তাঁদের জন্য প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী ও কংগ্রেস নেতা পি চিদম্বরম সহজ করে বলেছেন, ”এর মানে ২০১৯-২০ আর্থিক বছরের পর থেকে জিডিপি ২০ শতাংশ কমেছে।”  খবর ডিউব্লিউ।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের স্বদেশ/জে.এম