Logo

October 29, 2020, 2:16 am

সংবাদ শিরোনাম :
«» জগন্নাথপুরে প্রবাসী সাবেক ছাত্রদের পক্ষ থেকে শিক্ষকের পরিবারে অনুদান «» কানাইঘাট পৌর মেয়রের অনিয়ম-দুর্নীতি তুলে ধরে নাগরিক কমিটির প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত «» জগন্নাথপুরের কথিত সংবাদ কর্মী আলী হোসেনের বিরুদ্ধে আদালতে চাঁদাবাজির মামলা দায়ের «» দোয়ারাবাজারে আলাউদ্দিনের নামে মুক্তিযোদ্ধা সনদ ও সেনা গেজেট বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন «» ফ্রান্সে মহানবী সা.এর অবমাননার প্রতিবাদে জগন্নাথপুরের ভবেরবাজারে তৌহদী জনতার বিক্ষোভ মিছিল «» পীর হাবিবুর রহমানের বাসায় ভাংচুরের প্রতিবাদে সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের মানববন্ধন «» দেড় বছরের মেয়ের গলায় ছুরি ধরে গৃহবধূকে ধর্ষণ «» ফ্রান্সে মহানবী (সা:) কে অবমাননার প্রতিবাদে তরুণ প্রজন্ম জগন্নাথপুরের মানববন্ধন «» মৌলভীবাজার কমলগঞ্জে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তর কর্তৃক তদারকি অভিযান «» জগন্নাথপুরে ভেজাল বিরোধী অভিযানে ৪৩ হাজার টাকা জরিমানা আদায়

নবীগঞ্জে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে ফুফা-ফুফু গ্রেফতার

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি::

হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলায় ফুফুর কাছে টেইলারী কাজ শিখতে গিয়ে ফুফার যৌন লালসার শিকার হয়েছে ১৬ বছর বয়সী এক তরুণী। আর এতে সহযোগীতা করেছেন ভিকটিমের ফুফু।

এমন অভিযোগে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে গত শনিবার রাতে নবীগঞ্জ থানায় স্বামী-স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ঘটনাটি ঘটেছে নবীগঞ্জ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের শ্রীধরপুর (গুমগুমিয়া) গ্রামে।

 

আলোচিত এ ঘটনার মামলায় স্বামী-স্ত্রী দু‘জনকে গ্রেফতার করেছে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

গ্রেফতারকৃতরা হলো- সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর থানার খাঁনপুর গ্রামের আজির উদ্দিন (৩৫) ও তার স্ত্রী নাজমা বেগম (২৮)।

 

শনিবার দুপুরে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

মামলার সূত্রে প্রকাশ, সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর থানার খাঁনপুর গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের পুত্র আজির উদ্দিন প্রায় ৮/৯ বছর পূর্বে বিয়ে করেন নবীগঞ্জ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের শ্রীধরপুর প্রকাশ (গুমগুমিয়া) গ্রামের নাজমা বেগমকে। বিয়ের পর নাজমাকে তার বাড়িতে নেয়নি আজির উদ্দিন । নাজমার বাড়িতেই তারা সংসার শুরু করেন । প্রায় ৩ মাস পূর্বে নাজমা বেগম তার চাচাতো ভাইয়ের মেয়ে জনৈকা তরুণীকে টেইলারী কাজ শেখানোর প্রলোভন দেন। এতে সম্মতি দেন তরুণীর মা। গত ১১ অক্টোবর থেকে ওই তরুণী তার ফুফু নাজমার বাড়িতে যায় টেইলারী কাজ শিখতে।

 

প্রতিদিনের ন্যায় গত ১৪ অক্টোবর বুধবার টেইলারী কাজ শিখতে যায় তরুণী। ওই দিন সন্ধ্যা ৬ টার দিকে নাজমার সহায়তায় তার স্বামী আজির উদ্দিন ওই তরুণীকে একটি ঘরে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। প্রতিদিনের মতো মেয়ে বাড়ীতে না ফেরায় অপেক্ষা করে মেয়েকে আনতে নাজমার বাড়িতে যান ওই তরুণীর মা। তখন নাজমা

 

ও তার স্বামী তরুণীর মাকে ঘরে প্রবেশ করতে বাঁধা দেয়। এমনকি তরুণীকেও আটকে রাখে। এক পর্যায়ে গ্রামের মুরুব্বিদের জানিয়ে কয়েকজন লোক নিয়ে মেয়েকে উদ্ধার করেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে আজির উদ্দিন ও তার স্ত্রী নাজমা বেগমের বিরুদ্ধে নবীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

 

মামলার প্রেক্ষিতে নবীগঞ্জ থানার ওসি আজিজুর রহমানের নির্দেশে ওসি (অপারেশন) আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে এস আই কামাল আহমেদসহ একদল পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে স্বামী-স্ত্রী দু‘জনকে গ্রেফতার করেন।

 

শনিবার দুপুরে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আজিজুর রহমান জানান-ধর্ষণ মামলার প্রেক্ষিতে দুই আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং শনিবার দুপুরে তাদেরকে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের স্বদেশ/জে.এম