Logo

August 10, 2020, 7:57 am

সংবাদ শিরোনাম :

ঈদের আমেজ নেই আজিজ মার্কেটে

আজকের স্বদেশ ডেস্ক::

আর একদিন পরই পবিত্র ঈদুল আজহা। মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম এ উৎসবের আমেজ নেই রাজধানীর আজিক সুপার মার্কেটে। অন্যান্য বছর এ সময় ক্রেতা-বিক্রেতাদের আনাগোনায় মুখর থাকে, এ বছর সব সুনসান। অলস সময় পার করছেন বিক্রেতারা। দু-একজন ক্রেতা কেনাকাটার জন্য গেলেও অজানা আতঙ্ক যেন সবার চোখে মুখে।

eid4

করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউনে থাকার পর গত ১২ মে ঢাকায় বই ও পোশাকের জন্য সুপরিচিত বিপণি-বিতান আজিজ সুপার মার্কেট খোলা হয়। শাহবাগ চৌরাস্তা সংলগ্ন এলিফ্যান্ট রোডের এই মার্কেটটি খোলার পরও ক্রেতারা তেমন যাচ্ছেন না। ঈদ উপলক্ষে বেচাবিক্রি কিছুটা বাড়ার আশা করলেও এখন তাও হচ্ছে না বলে বিক্রেতারা জানান। এ জন্য অনেকে হতাশ।

eid4

বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) মার্কেটটি ঘুরে দেখা গেছে, দোকানে দোকানে রঙ-বেরঙের পোশাক। বিশেষ করে তরুণ-তরুণীদের জন্য পাঞ্জাবি, টি-শার্ট, প্যান্ট, ফতোয়া, থ্রি-পিস, ছোটদের বিভিন্ন পোশাকে দোকানগুলো ঠাঁসা। দেশাল, প্লাস পয়েন্ট, রেক্স, সাদাকালো, রঙ, নিত্য উপহার, ক্যানভাস, সারাবেলা, পৌষ, টোটেমের ফ্যাশন হাউজের মালিক ও বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা হলে তারা হতাশা প্রকাশ করেন।

ফানুস ফ্যাশন হাউসের স্বত্বাধিকারী সানজিদুল হাসান সাংবাদিকদের বলেন, ‘এখানে শোরুম দেয়ার পর কোনো ঈদেই এ রকম মন্দা যায়নি। এবার করোনার কারণে ক্রেতা নেই বললেই চলে। আমরা এক অনিশ্চিত গন্তব্যের মধ্যে আছি। কবে এ পরিস্থিতির উত্তরণ ঘটবে জানি না।’

eid4

পরীবাগ থেকে ছোট্ট মেয়েকে নিয়ে আজিজ সুপার মার্কেটে এসেছেন নাজমা আক্তার। করোনার কারণে সঙ্গে স্প্রে রেখেছেন। কোনো দোকান থেকে বের হওয়ার পরপরই মেয়ের হাতে স্প্রে করছেন। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ‘করোনার কারণে ঈদে কেনাকাটা করতে ভয় পাচ্ছি। কিন্তু ছোট্ট মেয়ের জন্য আসতে হয়েছে। ঈদ তো ছোটদেরই। তাই আসা।’

আজিমপুরের বাসিন্দা মো. সুলতান ছেলেকে নিয়ে এসেছেন। উদ্দেশ্য দুজনের জন্য পাঞ্জাবি কেনা। তিনি বলেন, ‘আমি একজন ছোট ব্যবসায়ী। কিন্তু করোনার কারণে ব্যবসা নেই। এবার কোরবানিও দিতে পারব না। কিন্তু বাপ-ছেলে দুটি পাঞ্জাব কিনতে এসেছি।’

eid4

জানতে চাইলে আজিজ মার্কেটের দোকান মালিক সমিতির সভাপতি নাজমুল আহসান বলেন, ‘শুধু আমরা কেন। কেউই ভালো নেই। আমাদের মার্কেটে বেচাবিক্রি নেই। আশা করি ধীরে ধীরে সব ঠিক হয়ে যাবে।’

 

 

 

আজকের স্বদেশ/তালুকদার