Logo

August 13, 2020, 5:21 pm

সংবাদ শিরোনাম :
«» কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, নিহত ৩ «» ব্যক্তি-গোষ্ঠীর স্বার্থে যেন শোক দিবসের পরিবেশ বিনষ্ট না হয় «» স্থানীয় সরকার নির্বাচনে তোড়জোড় ত্যাগীদের মূল্যায়ন করবে আওয়ামী লীগ «» কানাইঘাটে ক্যান্সার ও কিডনি সহ জটিল রোগে আক্রান্তের মধ্যে চেক বিতরণ «» জগন্নাথপুর উপজেলা জমিয়তের কাউন্সিল আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর: আহবায়ক কমিটি গঠন «» কানাইঘাট থানা ও ভূমি অফিস পরিদর্শনে সিলেটের জেলা প্রশাসক «» জগন্নাথপুরে স্টুডেন্ড’স ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের উদ্যোগে এসএসসি, দাখিল ও প্রবাসীদের সংবর্ধনা প্রদান «» ছাতকে অ্যাম্বুলেন্সের ধাক্কায় সিএনজি খাদে, কিশোরীর মৃত্যু «» সর্বস্থরের জনগনের ভালবাসায় আবারো সিক্ত হলেন জগন্নাথপুরের কৃতি সন্তান মিন্টু রঞ্জন ধর ও উনার সহ-ধর্মিনী হেপী রানী ধর «» প্রকল্পে ‘অস্বাভাবিক খরচ’ না মানার বিষয়ে একমত মন্ত্রীসহ ৩০ সচিব

পাপুল কাণ্ডে কুয়েতের সেনা কর্মকর্তা গ্রেফতার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::

মানবপাচারের অভিযোগে কুয়েতে গ্রেফতার লক্ষ্মীপুর-২ আসনের এমপি কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের সঙ্গে সন্দেহজনক আর্থিক লেনদেন ও ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে কুয়েতের এক সেনা কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আরবি ভাষার পত্রিকা আল কাবাসের বরাত দিয়ে গালফ নিউজ জানিয়েছে, দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অ্যাসিসট্যান্ট আন্ডার সেক্রেটারি মেজর জেনারেল মাজেন আল-জারাহকে গ্রেফতার করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

 

 

 

 

খবরে বলা হয়, ঘুষের বিনিময়ে পাপুলের বেশ কিছু কাজ দ্রুত অনুমোদন করিয়ে দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে মেজর জেনারেল মাজেন আল-জারাহ । তিনি কুয়েতের নাগরিকত্ব, পাসপোর্ট ও বসবাসের অনুমতি বিষয়ক দপ্তরের অ্যাসিসট্যান্ট আন্ডার সেক্রেটারি ছিলেন।

 

 

 

বাংলাদেশি এমপি পাপুল রিমান্ডে যাদের নাম বলেছেন তাদের মধ্যে মাজেন আল-জারাহ অন্যতম। ২৩ হাজারের বেশি কর্মীর এন্ট্রি ভিসার অনুমোদনের জন্য ঘুষ দেওয়ার কথা রিমান্ডে জানিয়েছেন এমপি পাপুল।

 

 

এক পর্যায়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অ্যাসিসট্যান্ট আন্ডার সেক্রেটারির পদে থাকা মেজর জেনারেল মাজেন আল-জারাহকে জুনের শেষ দিকে বরখাস্তের আদেশ দেন কুয়েতের উপ-প্রধানমন্ত্রী আনাস আল-সালেহ।

 

 

 

এরপর গত বৃহস্পতিবার এই সেনা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে কুয়েতের পাবলিক প্রসিকিউশন। ওই পরোয়ানার ভিত্তিতেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

 

 

 

লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য পাপুলকে গত ৬ জুন রাতে কুয়েতের মুশরিফ এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। মারাফি কুয়েতিয়া কোম্পানির অন্যতম মালিক পাপুলের সেখানে বসবাসের অনুমতি রয়েছে।

 

 

 

পাচারের শিকার ৫ বাংলাদেশির অভিযোগের ভিত্তিতে পাপুলের বিরুদ্ধে মানবপাচার, অর্থপাচার ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের শোষণের অভিযোগ এনেছে কুয়েতি প্রসিকিউশন। ১৭ দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর এখন তাকে রাখা হয়েছে কুয়েতের কেন্দ্রীয় কারাগারে।

 

 

আজকের স্বদেশ/তালুকদার