Logo

July 6, 2020, 4:10 pm

সংবাদ শিরোনাম :
«» নবীগঞ্জে দু’টি পরিবারকে সমাজচ্যুত করেও ক্ষান্ত হয়নি গ্রাম্য মোড়লরা! নির্যাতিত পরিবারের এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে আহত «» সুরমা নদীর ভাঙ্গন রোধে স্থায়ী প্রতিরক্ষা কাজ বাস্তবায়ন করা হবে: হুইপ পীর মিসবাহ এমপি «» অবশেষে মুক্তি পেলেন খুলনার সেই সালাম ঢালী «» জগন্নাথপুর পৌরসভার ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা «» নবীগঞ্জে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ভাতা সুবিধাভোগীর টাকা আত্মসাতের অভিযোগ «» সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর আর নেই «» ছাতকে অজ্ঞাতনামা মহিলার ভাসমান লাশ উদ্ধার «» আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা «» সাংসদ পাপুলের বিরুদ্ধে সিআইডির অনুসন্ধান শুরু «» রিজার্ভ থেকে ঋণ নেয়ার প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর

জগন্নাথপুরের কুশিয়ারা নদী থেকে ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে কুশিয়ারা নদী থেকে ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। লাশ উদ্ধার করে সোমবার (২৯ জুন) ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

 

 

স্থানীয়রা জানান, রবিবার সন্ধ্যার দিকে সেবা মূলক ৯৯৯ নম্বরে কল দিয়ে জগন্নাথপুর থানার পুলিশকে জানানো হয়, জগন্নাথপুরের পাইলগাঁও ইউনিয়নের জালালপুর খেয়াঘাট এলাকায় কুশিয়ারা নদীতে একটি মৃতদেহ ভাসছে। এ খবর পেয়ে জগন্নাথপুর থানার উপ-পরির্দশক (এসআই) মির্জা সাখাওয়াত হোসেন এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ কুশিয়ারা নদীতে ভাসমান লাশ উদ্ধার করে। লাশটি নুরুল হক (৫৩) নামে এক ব্যক্তির।

 

 

 

 

পুলিশ জানায়, উদ্ধারকৃত ব্যক্তির দেহের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহৃ রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে ঘাতকরা হত্যা করে লাশ নদীতে ফেলে দিয়েছে। পুলিশ আরো জানায়, উদ্ধারকৃত মরদেহের পরিচয় পাওয়া গেছে।

 

 

 

 

 

 

তিনি মৌলভীবাজার জেলার ছনকাপন গ্রামের মৃত মোবারক আলীর ছেলে নুরুল হক (৫৩)। স্বজনরা তার লাশটি শনাক্ত করেছেন। গত বুধবার থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন বলে পুলিশকে জানিয়েছেন নিহতের ছেলে ও ভাই।

 

 

 

 

 

 

 

জগন্নাথপুর থানার অফিসার ইনজার্চ ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, ৯৯৯ নম্বরে কল পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

 

 

আজকের স্বদেশ/তালুকদার