Logo

July 10, 2020, 9:43 am

সংবাদ শিরোনাম :

যুবলীগ-ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বাঁধা: লোভাছড়া কোয়ারী থেকে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে রাতের আঁধারে পাথর বহন

কানাইঘাট প্রতিনিধি::
কানাইঘাট লোভাছড়া পাথর মহালের ইজারার মেয়াদ শেষ হওয়ার পর প্রশাসনের বাঁধা নিষেধ থাকার পরও সেখান থেকে ইঞ্জিন চালিত ৫টি বলগেটে পাথর বোঝাই করে রাতের আঁধারে কানাইঘাট খেয়াঘাট বাসস্ট্যান্ড সুরমা নদীর ঘাটে আনলোড করার সময় প্রতিবাদ করেছেন স্থানীয় যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

 

 

 

 

 

 

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এম. আখতার হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে প্রশাসনের বাঁধা নিষেধ উপেক্ষা করে লোভাছড়া পাথর কোয়ারী থেকে ৫টি পাথর বোঝাই ইঞ্জিন চালিত বলগেট সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে নদীপথে কানাইঘাটের দিকে আসছে জেনে তিনি সহ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহŸায়ক আজমল হোসেন, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহŸায়ক এস.এম মাহবুবুল আম্বিয়া, যুবলীগ নেতা ফরিদ আহমদ, আলমগীর, জাকির হোসেন, ইয়াহিয়া, জাকারিয়া, দেলোয়ার, সাবেক ছাত্রনেতা পর্তুগাল প্রবাসী কাওছার আহমদ, জেলা ছাত্রলীগের নেতা আখতারুজ্জামান হিমেল, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি এম. নোমান আহমদ রোমান, কানাইঘাট কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহমান সহ দলের বেশ কিছু নেতাকর্মী কানাইঘাট পূর্ব বাজারে খেয়াঘাটে অবস্থান করেন।

 

 

 

 

 

 

 

একপর্যায়ে রাত সাড়ে ৩টার দিকে পাথর বোঝাই ৫টি ইঞ্জিন চালিত বলগেট খেয়াঘাট বাসস্ট্যান্ড সুরমা নদীর ঘাটে ভিড়লে সেখানে তারা নৌকা নিয়ে যান এবং প্রশাসনের বাঁধা নিষেধের পর কিভাবে তারা পাথর এখানে পরিবহন করে আনলো জানতে চাইলে বলগেটের চালক ও শ্রমিকরা জানান, তারা গভীর রাতে বলগেট বোঝাই করে পাথর নিয়ে কানাইঘাটে আসতে অস্বীকৃতি জানান এবং সেখান থেকে পাথর বহন করা প্রশাসনিক নিষেধ রয়েছে তাও তারা জানেন।

তারপরও সানী এন্ড শাহী নৌ পরিবহনের সত্ত¡াধিকারী জেলা পরিষদের ১৫নং ওয়ার্ডের সদস্য আলমাছ উদ্দিন বলেছেন, পাথর বহন করার জন্য তাই তারা খেয়াঘাটে পাথর বহন করে এসেছেন।

 

 

 

 

 

 

 

এ সময় স্বেচ্ছাসেবকলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বলগেট চালক ও শ্রমিকদের কোথাও রয়েলিটি দিয়েছেন কি না জানতে চাইলে তারা বলেন, তারা রয়েলিটি না দিয়ে আলমাছ উদ্দিনের নিজ দায়িত্বে পাথর নিয়ে খেয়াঘাটে এসেছেন এবং অপর ৪টি বলগেট কার তত্ত¡াবধানে এসেছে শ্রমিকরা বলতে পারেনি।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

এ ঘটনাটি রাতেই স্বেচ্ছাসেবকলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মোমিন চৌধুরীকে জানিয়েছেন।

তারা কোয়ারির লীজের মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে প্রশাসনের নিষেধ অমান্য করে যারা সেখান থেকে বলগেট থেকে পাথর নিয়ে এসেছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের কাছে দাবী জানিয়েছেন তারা।

 

 

 

 

 

 

আজকের স্বদেশ/জে.এম