Logo

April 9, 2020, 10:21 pm

সংবাদ শিরোনাম :
«» দোয়ারাবাজারে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত যুবকের লাশ বহনে খাটিয়া দেয়নি গ্রামবাসী, ছবি ভাইরাল «» সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা «» কানাইঘাটে ছাত্রনেতা হারুণ রশিদের ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে ৩০০পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ «» লকডাউন সফল করতে পেটে ভাত থাকা চাই «» থুতু দিয়ে করোনা ছড়ানোর হুমকি দিয়ে গ্রেফতার দুই «» মসজিদে নয় বাসায় শবে বরাতের আমলের আহ্বান আলেমদের «» করোনা: অন্য এলাকা থেকে এলে থাকতে হবে হোম কোয়ারেন্টিনে…. এসআই আফসার আহমদ «» কালীবাড়ি ও আশেপাশের এলাকার অর্ধশত পরিবারে অধ্যক্ষ শেরগুল আহমদ মানবিক খাদ্য সহযোগিতা প্রদান «» জগন্নাথপুর উপজেলা জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উদ্যোগে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ব্লিচিং পাউডার দেয়া হচ্ছে «» চীনকে ধন্যবাদ জানালেন প্রধানমন্ত্রী

পাপিয়ার অবৈধ সম্পদের খোঁজ নিচ্ছে দুদক

স্বদেশ ডেস্ক::

র‌্যাবের অভিযানে গ্রেফতার যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়ার অবৈধ সম্পদের খোঁজ নিচ্ছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার বিকালে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানান সচিব দিলওয়ার বখত।

 

তিনি বলেন, বড় দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে দুদক ব্যবস্থা নিচ্ছে। পাপিয়ার ঘটনারও অনুসন্ধান করা হচ্ছে। পাপিয়ার অনুসন্ধানের সূত্র ধরে অন্যদের নাম এলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেবে কমিশন।

 

 

গত ২২ ফেব্রুয়ারি দুপুরে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে জাল টাকা বহন ও অবৈধ টাকা পাচারের অভিযোগে শামীমা নূর পাপিয়া ওরফে পিউসহ চারজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। গ্রেফতারকৃত অন্যরা হলেন- পাপিয়ার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী ওরফে মতি সুমন (৩৮), সাব্বির খন্দকার (২৯) ও শেখ তায়্যিবা (২২)।

 

 

লে. কর্নেল শাফী উল্লাহ বুলবুল বলেন, প্রাথমিক তদন্তে ফার্মগেটে পাপিয়ার দুটি বিলাসবহুল ফ্ল্যাট, নরসিংদী শহরে দুটি ফ্ল্যাট, ২ কোটি টাকা মূল্যের দুটি প্লট, চারটি বিলাসবহুল গাড়ি এবং গাড়ি ব্যবসায় প্রায় দেড় কোটি টাকা বিনিয়োগের তথ্য পাওয়া গেছে। এ ছাড়া বিভিন্ন দেশের ব্যাংকে নামে-বেনামে বিপুল পরিমাণ অর্থ গচ্ছিত থাকার কথা জানা গেছে।

 

 

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১ অধিনায়ক (সিও) লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাফী উল্লাহ বুলবুল বলেন, চাকরিপ্রত্যাশী নারীদের দেহব্যবসায় বাধ্য করতেন শামীমা নূর পাপিয়া। আর অনৈতিক কর্মের ভিডিও ধারণ করে ব্যবসায়ীদের ব্ল্যাকমেইল করতেন। এ দুই উপায়ে তিনি শত শত কোটি টাকার মালিক বনে গেছেন। অস্ত্র ও মাদক মজুদের পাশাপাশি কিউঅ্যান্ডসি নামে ক্যাডার বাহিনীও গঠন করেছেন।

 

 

তিনি জানান, পুলিশের এসআই ও বাংলাদেশ রেলওয়ের বিভিন্ন পদে মানুষকে চাকরি দেয়ার কথা বলে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হওয়া পাপিয়া ও তার স্বামী সুমন। শুধু তাই নয়, জমির দালালি, সিএনজি পাম্পের লাইসেন্স দেয়া, গ্যাসলাইন সংযোগের নামেও সাধারণ মানুষের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন তারা। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন ব্যাংকে নামে-বেনামে বিপুল পরিমাণ অর্থ রেখেছেন এই দম্পতি।

 

 

 

 

আজকের স্বদেশ/জুয়েল