Logo

July 12, 2020, 12:50 pm

সংবাদ শিরোনাম :
«» জগন্নাথপুরে মুক্ত সমাজ কল্যাণ সংস্থার ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত «» ন্যায্য মূল্যে মাস্ক বিক্রি ও নকল হ্যান্ড সেনিটাইজার বিক্রি বন্ধে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের অভিযান «» দিরাইয়ে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু «» করোনায় মারা গেলেন আরও ৪৭ জন , আক্রান্ত ২৬৬৬ «» নভেম্বরে মানবদেহে ভ্যাকসিনের পরীক্ষা চালাবে থাইল্যান্ড «» প্রাইভেট না পড়ায় শিক্ষার্থীর বই নিয়ে গেলেন শিক্ষক «» মাস্ক মুখে দিয়েও ট্রাম্প বললেন ‘আমি মাস্কের বিরুদ্ধে’ «» ইতালিতে ফের ছড়াচ্ছে করোনা, নতুন রোগীদের সিংহভাগ বাংলাদেশি «» ছাদ থেকে পড়ে মায়ের মৃত্যু, অলৌকিকভাবে বেঁচে গেল কোলের শিশু «» পাপুল কাণ্ডে কুয়েতের সেনা কর্মকর্তা গ্রেফতার

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার মামলায় কানাডার সমর্থন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::

রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগে মিয়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়ার আন্তর্জাতিক আদালতে দায়ের করা মামলায় সমর্থন জানিয়েছে কানাডা৷ কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ক্রিস্টিয়া ফ্রিল্যান্ডকে উদ্ধৃত করে এ খবর জানিয়েছে দ্যা কানাডিয়ান প্রেস৷

 

গত সোমবার মিয়ানমারের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা চালানোর অভিযোগ এনে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে মামলা দায়ের করে গাম্বিয়া৷ মুসলিম দেশগুলোর সংগঠন অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশনের (ওআইসি) পক্ষ থেকে মামলাটি দায়ের করা হয়৷

 

এক বিবৃতিতে ক্রিস্টিয়া ফ্রিল্যান্ড বলেন, ‘মিয়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার দায়ের করা আন্তর্জাতিক গণহত্যা কনভেনশন লঙ্ঘনের অভিযোগের বিষয়টিতে কানাডার সমর্থন রয়েছে৷ এ বিষয়ে কিভাবে পূর্ণ সহায়তা প্রদান করা যায় সে পথ খুঁজছে কানাডা৷’

 

গাম্বিয়ার উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে তিনি বলেন, বিষয়টি আইনি সমাধানের জন্য সমমনা দেশগুলোকে নিয়ে কাজ করবে কানাডা৷ রোহিঙ্গা নির্যাতনের সঙ্গে জড়িত অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনতে এবং মিয়ানমারে দীর্ঘ মেয়াদে শান্তি ও সম্প্রীতি ফিরিয়ে আনতে কাজ করবে কানাডা৷

 

মিয়ানমারের আরাকান রাজ্যে সেনাবাহিনীর নির্যাতনের মুখে ২০১৭ সালে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয় সাত লক্ষাধিক রোহিঙ্গা।

 

ঘটনার তদন্তে ২০১৮ সালে একটি ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিশন গঠন করে জাতিসংঘ৷ এ কমিশন তাদের প্রতিবেদনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যার জোরালো প্রমান তুলে ধরে৷ সেসময় ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিশনের এ প্রতিবেদনকে সমর্থন জানায় কানাডার হাউস অব কমন্স৷

 

রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে নির্যাতন ঠেকাতে কোন ভূমিকা রাখতে না পারার অভিযোগ এনে দেশটির ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের নেত্রী অং সান সুচিকে দেয়া সম্মানজনক নাগরিকত্বও বাতিল করে দেশটি৷

 

 

 

 

আজকের স্বদেশ/এবি