Logo

November 13, 2019, 5:42 pm

সংবাদ শিরোনাম :
«» ট্রেন দূর্ঘটনায় সঙ্গীত শিল্পী আশিকের শোক, জড়িতদের শাস্তির দাবী «» দোয়ারাবাজারের খাসিয়ামারা নদীতে বাঁশের সাঁকোই ভরসা, সেতু নির্মাণের দাবী «» কিশোরগঞ্জে এবার গায়েবি শিশুর জন্ম! «» ছাতকে ডায়মল্ড লাইফের বীমা দাবীর চেক বিতরণ «» মুক্তিযোদ্ধার সৃত্মি আগামী প্রজম্মের কাছে তুলে ধরার জন্য এই উদ্যোগ-জেলা প্রশাসক «» কানাইঘাট লোভাছড়া পাথর কোয়ারি থেকে অবৈধ ভাবে পাথর উত্তোলনের পায়তারা «» উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে ছাতক প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের মতবিনিময় «» জগন্নাথপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত «» জামালগঞ্জে দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে চেক বিতরণ «» জগন্নাথপুরে প্রীতি ফুটবল ম্যাচে গোল শুন্য ড্র

সাংবাদিকদের সাথে কানাইঘাট আ’লীগের সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মাসুদের মতবিনিময়

কানাইঘাট প্রতিনিধি::

আগামী ১১ নভেম্বর সিলেটের কানাইঘাট উপজেলা আওয়ামীলীগের বহু প্রত্যাশিত ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

দীর্ঘদিন পর কানাইঘাট আওয়ামীলীগের সম্মেলন কে ঘিরে দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উদ্বীপনা বিরাজ করছে। কাউন্সিলের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব উঠে আসুক সেই প্রত্যাশা করছেন নেতাকর্মীরা।

 

কাউন্সিলে সাধারন সম্পাদক প্রার্থী হিসাবে প্রতিদন্ধিতাকারী উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সাবেক তুখোড় ছাত্রনেতা যুব ও ক্রীড়া সংগঠক ৭নং দক্ষিন বানীগ্রাম ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ সম্মেলনের সফলতা কামনা করে মতবিনিময় করেছেন।

 

বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় কানাইঘাট প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ ও কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় কালে সাধারন সম্পাদক প্রার্থী চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ বলেন, তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন সৈনিক হিসাবে ১৯৯০ সালে কানাইঘাট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত অবস্থায় ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত হওয়ার মধ্য দিয়ে এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন।

 

পর্যায়ক্রমে তিনি সিলেট এমসি কলেজ ছাত্রলীগের ছাত্রাবাসের সভাপতি এবং এমসি কলেজ ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক, জেলা যুবলীগের সদস্য এবং কানাইঘাট উপজেলা যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারন সম্পাদক, কানাইঘাট আওয়ামীলীগের সমাজকল্যান সম্পাদক সহ বিভিন্ন সময় অন্যান্য পদে সফল ভাবে দায়িত্ব পালনের পর সর্ব শেষ উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

 

আওয়ামীগের রাজনীতির সাথে জড়িত থাকার পাশাপাশি তিনি বৃহত্তর জৈন্তিয়া সহ কানাইঘাটের বিভিন্ন দাবী দাওয়া বাস্তবায়ন ও শিক্ষার প্রসার আন্দোলনে নেতৃত্বের কথা তোলে ধরে মতবিনিময় সভায় মাসুদ আহমদ বলেন, দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের অকুণ্ঠ সমর্থন ও সহযোগিতা নিয়ে তিনি কানাইঘাট আওয়ামীলীগের কাউন্সিলের সাধারন সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছেন।

 

দলের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তৃণমূল পর্যায়ে কাউন্সিলের মাধ্যমে বিতর্কিত দূর্নীতিবাজ, দলবিরোধী, মাদক ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড সহ যারা অবৈধ উপায়ে দলের নাম ব্যবহার করে সম্পদের পাহাড় গড়ে তোলেছে তারা যেন দলের তৃণমূল পর্যায়ে নেতৃত্বে আসতে না পারে এজন্য নির্দেশনা দিয়েছেন। আমি কাউন্সিলারদের ভোটে সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হলে দলের সভানেত্রীর নির্দেশনা  মোতাবেক কানাইঘাট আওয়ামীলীগে দলের ত্যাগী ও পরীক্ষীত নেতাকর্মীদের নিয়ে কর্মীবান্ধব এবং সৎ নেতৃত্ব সৃষ্টি করবো।

 

মাসুদ আহমদ আরো বলেন,  দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতির সাথে জড়িত রয়েছি কখনো দলের বিরুদ্ধে অবস্থান নেইনি, কোন ধরনের দূর্নীতির সাথে জড়িত ছিলাম না। কানাইঘাট আওয়ামীলীগকে সু-সংগঠিত করার জন্য কাজ করে গিয়েছি। দু’বার দলের মনোনয়ন নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি।

 

তিনি ১১ নভেম্বরের সম্মেলনে কোন ধরনের পকেট কমিটি গঠন করা হলে নেতাকর্মীরা তা মানবেন না। দলের নেতাকর্মী সমর্থকরা কাউন্সিলের মাধ্যমে নেতৃত্ব বেরিয়ে আসুক তা চান। সম্মেলন সফল হোক সেই প্রত্যশা করে মাসুদ আহমদ কাউন্সিলরদের সর্বাত্মক সহযোগিতার পাশাপাশি দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মী ও সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

 

 

 

 

 

 

আজকের স্বদেশ/জুয়েল