Logo

November 13, 2019, 6:28 pm

সংবাদ শিরোনাম :
«» ট্রেন দূর্ঘটনায় সঙ্গীত শিল্পী আশিকের শোক, জড়িতদের শাস্তির দাবী «» দোয়ারাবাজারের খাসিয়ামারা নদীতে বাঁশের সাঁকোই ভরসা, সেতু নির্মাণের দাবী «» কিশোরগঞ্জে এবার গায়েবি শিশুর জন্ম! «» ছাতকে ডায়মল্ড লাইফের বীমা দাবীর চেক বিতরণ «» মুক্তিযোদ্ধার সৃত্মি আগামী প্রজম্মের কাছে তুলে ধরার জন্য এই উদ্যোগ-জেলা প্রশাসক «» কানাইঘাট লোভাছড়া পাথর কোয়ারি থেকে অবৈধ ভাবে পাথর উত্তোলনের পায়তারা «» উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে ছাতক প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের মতবিনিময় «» জগন্নাথপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত «» জামালগঞ্জে দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে চেক বিতরণ «» জগন্নাথপুরে প্রীতি ফুটবল ম্যাচে গোল শুন্য ড্র

নয়াপল্টনে খোকাকে বিএনপির শেষ শ্রদ্ধা

আজকের স্বদেশ ডেস্ক::

একসময় দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মী বেষ্টিত হয়ে আসতেন বিএনপি নেতা সাদেক হোসেন খোকা। দলীয় কাজকর্ম সেরে যখন চলে যেতেন তখনও তাকে ঘিরে থাকত নেতাকর্মীদের জটলা। সেই কার্যালয়ের সামনে দীর্ঘদিন পর আসলেন অবিভক্ত ঢাকার সাবেক এই মেয়র। তবে জীবিত আসেননি, এসেছেন কফিনবন্দি হয়ে।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খোকাকে শেষবারের মত বিদায় জানাতে তাই নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নেতাকর্মীদের ঢল নামে। বৃহস্পতিবার বেলা দেড়টার দিকে খোকার মরদেহ সেখানে আনা হয়। কিন্তু আগে থেকেই এখানে ঢাকার বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ড থেকে বিএনপি এবং অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা এসে জড়ো হন। পরে অনুষ্ঠিত হয় তৃতীয় জানাজা।

জানাজা শেষে দল ও অঙ্গ সংগঠনের পক্ষ থেকে কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এসময় নেতাকর্মীরা আবেগআপ্লুত হয়ে পড়েন। এসময় সবাই বুকে কালো ব্যাজ ধারণ করেছিলেন।

এর আগে সকাল সাড়ে আটটার দিকে তার মরদেহ দেশে আনার পর সংসদ ভবনে দ্বিতীয় জানাজার জন্য নেওয়া হয়। সেখানে জানাজা শেষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য নেওয়া হয় তার লাশ। এরপর নয়াপল্টনে নেওয়া হয় এই গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা।

গত সোমবার বাংলাদেশ সময় দুপুরে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ম্যানহাটনে স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যানসার সেন্টারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সাদেক হোসেন খোকা। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর।

ক্যান্সারের চিকিৎসার জন্য ২০১৪ সালের মে মাসে সস্ত্রীক দেশ ছেড়েছিলেন একসময়ে ঢাকার এই দাপুটে নেতা। তখন থেকেই সেখানে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

আজকের স্বদেশ/এবি