Logo

February 21, 2020, 8:26 am

সংবাদ শিরোনাম :

বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর সড়কে ৬ঘন্টা পরিবহন ধর্মঘট করে: ২য় বার ধর্মঘট প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক::

খানাখন্দে ভরপূর জনগুরুত্বপূর্ণ বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর সড়কটি সংস্কারের অভাবে যানবাহন চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়ার কারণে যান-মালের নিরাপত্তার জন্য গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য সড়কে বাস চলাচলা বন্ধ করেও বেলা ১টায় ২য় বার ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়।

জানা যায়, পরিবহন শ্রমিক-এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে সড়কটির বেহাল দশার কথা তুলে ধরে ইতিপূর্বে সড়কটি বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর দুই উপজেলার অংশ সংস্কারের জন্য স্থানীয় এমপি ও প্রশাসনের কাছে বার বার আহবান করা হলেও কোন কাজ হয়নি বলে দাবী করেছেন পরিবহন শ্রমিকরা। এতে যানবাহন চলাচল আরোও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

তাই যান-মালের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করেই জনগুরুত্বপূর্ণ বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর সড়কে অনির্দিষ্টকালের জন্য সড়কে বাস চলাচলা বন্ধ থাকবে ঘোষনা আসে মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে। সড়ক সংস্কারের দাবীতে গত ১৪ জুলাই থেকেও ওই সড়কে বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়ে ছিল।

পরবর্তিতে প্রশাসন ও সংশ্লিস্ট বিভাগের আশ্বাসে তা প্রত্যাহার করা হয়। কিন্তু দীর্ঘদিন ফেরিয়ে গেলেও তা সংস্কার না হওয়ায় পরিবর্তন শ্রমিকরা আবারও বাস চলাচল বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন। মঙ্গলবার বেলা ১টায় আবারও পরিবর্হন ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়।

শ্রমিক ও মালিক সমিতির একাধিক সূত্রে জানা যায়, জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ-সিলেট সড়কের মিনিবাস শ্রমিক সমিতি ও মালিক সমিতির নেতারা বিশ্বনাথ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বর্ণালী পালের সভাপতিত্বে ধর্মঘটের কারণে সৃষ্ট জনদূর্ভোগ কমানোর জন্য স্থানীয় রাজনীতিবীদ, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, সাংবাদিক ও পরিবহন শ্রমিক নেতাদের উপস্থিতিতে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত সভা থেকেই প্রশাসনের পক্ষ থেকে পরিবহন শ্রমিকদেরকে আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর মধ্যে সড়কের সংস্কার কাজ শুরুর আশ্বাস প্রদান করা হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইনচার্জ শামীম মুসা,

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পংকি খান, বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছয়ফুল হক, সিলেট-বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর-লামাকাজী-টুকেরবাজার শ্রমিক উপ-কমিটির সভাপতি ফজর আলী মেম্বার, সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজাহান সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

 

 

আজকের স্বদেশ/তালুকদার