Logo

January 18, 2020, 1:43 am

সংবাদ শিরোনাম :
«» ম্যানসেস্টার চ্যানেল এস টিভির ব্যুরো চীফসহ প্রবাসীর সাথে বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের মতবিনিময় «» পুলিশ বাহিনীকে আধুনিক করার চেষ্টা চলছে: আইজিপি «» দুরন্ত ক্লাবের অর্থায়নে ইসলামপুর মসজিদের পূর্ন সংস্কার জন্য রাজ মিস্ত্রি কাছে চাবি হসান্তর «» কমলগঞ্জে আন্তঃক্রীড়া মনিপুরী ১৪তম ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্ধোধন «» ইভিএমে জাল ভোট দেয়া সম্ভব: নির্বাচন কমিশনার রফিকুল «» রানীগঞ্জ ইউনিয়ন চ্যাম্পিয়নশীপের ৪র্থ ম্যাচে ইসলামপুর ভাই ভাই ফুটবল ক্লাব বিজয়ী «» গাড়িতে বসা শিশুর প্রতি রিকশাওয়ালার বিরল ভালোবাসা «» শাহবাগের পুলিশ কন্ট্রোল রুম থেকে লাফিয়ে পড়ে কনস্টেবলের আত্মহত্যা «» স্বামীর সঙ্গে বন্ধুর বাড়িতে গিয়ে নববধূ নিখোঁজ! «» পাকনার হাওরের কানাইখালী নদীর সমস্যা সমাধান করা হবে: পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নান

এইচএসসি পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করবেন যেভাবে

আজকের স্বদেশ ডেস্ক::

উচ্চ মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় যারা অকৃতকার্য হবেন অথবা কাঙ্ক্ষিত ফল পাবেন না, তারা ফল পুনঃনিরীক্ষার সুযোগ পাবেন।

টেলিটক নম্বর থেকে আগামী ১৮ থেকে ২৪ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসি ও সমমানের ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করা যাবে।

ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন যেভাবে করবেন ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করতে RSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে বিষয় কোড লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

ফিরতি এসএমএসে ফি বাবদ কত টাকা কেটে নেয়া হবে তা জানিয়ে একটি পিন নম্বর (পার্সোনাল আইডেন্টিফিকেশন নম্বর-PIN) দেয়া হবে।

আবেদনে সম্মত থাকলে RSC লিখে স্পেস দিয়ে YES লিখে স্পেস দিয়ে পিন নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে যোগাযোগের জন্য একটি মোবাইল নম্বর লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে।

প্রতিটি বিষয় ও প্রতিটি পত্রের জন্য ১৫০ টাকা হারে চার্জ কাটা হবে।

যেসব বিষয়ের দুটি পত্র (প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র) রয়েছে, যেসব বিষয়ের ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করলে দুটি পত্রের জন্য ৩০০ টাকা ফি কাটা হবে।

একই এসএমএসে একাধিক বিষয়ের আবেদন করা যাবে, এ ক্ষেত্রে বিষয় কোড পর্যায়ক্রমে ‘কমা’ দিয়ে লিখতে হবে।

এ বছর এইচএসসিতে পাসের হার ও জিপিএ-৫ দুটোই বেড়েছে। সার্বিকভাবে পাস করেছে ৭৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ শিক্ষার্থী।

এ বছর পাস করেছে ১৩ লাখ ৬৬ হাজার ৬২৯ শিক্ষার্থী। সারা দেশে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৭ হাজার ৫৮৬ জন।

গড়ে এ বছর ৭৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। গত বছর (২০১৮ সালে) এ পরীক্ষায় পাসের হার ছিল ৬৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ। এ বছর জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৭ হাজার ৫৮৬ জন। গত বছর জিপিএ-৫ পেয়েছিল ২৯ হাজার ২৬২ জন

সেই হিসাবে এবার উচ্চ মাধ্যমিকে পাসের হার বেড়েছে ৭ দশমিক ২৯ শতাংশ। আর জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে ১৮ হাজার ২৪ জন।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বুধবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ফলের সারসংক্ষেপ হস্তান্তর করেন। শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীসহ বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন।

বেলা সাড়ে ১২টায় সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এবারের ফলের বিভিন্ন দিক তুলে ধরবেন শিক্ষামন্ত্রী। বেলা ১টা থেকে শিক্ষার্থীরা শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইট (www.educationboardresults.gov.bd), নিজের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছাড়াও যেকোনো মোবাইল থেকে এসএমএস করে ফল জানতে পারবেন।

 

 

 

আজকের স্বদেশ/এবি