Logo

June 3, 2020, 10:20 am

সংবাদ শিরোনাম :
«» বসুন্ধরার ২০০০ শয্যার করোনা হাসপাতালে সেবা প্রদান শুরু «» করোনায় টানা দ্বিতীয় দিনে ৩৭ মৃত্যু, শনাক্ত আরও ২৬৯৫ «» লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে হত্যার ‘মূল হোতা’ খালেদ ড্রোন হামলায় নিহত «» সুনামগঞ্জে ১৪ র‍্যাবসহ একদিনে ৩৯ জনের করোনা শনাক্ত «» যুক্তরাষ্ট্রে শহরে শহরে কারফিউ ভেঙে চলছে বিক্ষোভ «» ভূমিকম্পে কাঁপল বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত «» বিকেলে ১১০ কিমি বেগে মুম্বাইয়ে আঘাত হানবে ‘নিসর্গ’ «» কুড়িগ্রামে ভারতীয় হাতির দলের তাণ্ডব «» করোনায় আক্রান্ত মেয়র আরিফের স্ত্রী «» জিয়াউর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকীতে যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দলের লাইভ ভার্চুয়াল আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

জগন্নাথপুরে স্ত্রী কর্তৃক তালাকপ্রাপ্ত হয়েও নির্যাতনের শিকার সবজিল

নিজস্ব প্রতিনিধি::

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে সবজিল মিয়া নামের এক কৃষক তার স্ত্রী জেবিনা কর্তৃক তালাকপ্রাপ্ত হওয়ার পর থেকে স্ত্রীর লোকজনের নির্যাতনে অতিষ্ট হয়ে গতকাল বুধবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে জানাযায়, জগন্নাথপুর পৌর শহরের বাদাউড়া গ্রামের হাজী সোনাহর আলীর পুত্র সবজিল মিয়া প্রায় ৩০ বছর আগে জগন্নাথপুর পৌর শহরের হবিবপুর দক্ষিন পাড়া গ্রামের  মৃত জুনাব আলীর মেয়ে জেবিনা বেগমকে বিয়ে করেন।

 

তাদের ২ছেলে ও ২ মেয়ে রয়েছে। ২ বছর পূর্বে জেবিনা বেগম পরকীয়া প্রেমে আসক্ত হলে তার সাথে সবজিল মিয়ার সাথে মনমালিন্য দেখা দেয়।

এ বিষয়ে জগন্নাথপুর পৌর সভায় পৌর মেয়র আব্দুল মনাফের সভাপতিত্বে শালিষী বৈঠক অনুষ্টিত হয়। জেবিনা বেগম বৈঠকের সিদ্ধান্ত অমান্য করে সবজিল মিয়া বাড়িতে না থাকায় এ সুযোগে তার বসত ঘর থেকে সোনা, গয়না, গরু বাছুর সহ মূল্যবান জিনিস পত্র নিয়ে পালিয়ে যায়।

এর পর সুনামগঞ্জ আদালতের মাধ্যমে সবজিল মিয়াকে জেবিনা বেগম ডিভোর্স দেয়। এর পর থেকে সবজিল ও জেবিনা বেগম আলাদা বসবাস করে আসছে।

অভিযোগে আরো উল্লেখ করেন  গত ১৮ই মার্চ জেবিনা বেগমসহ একদল দাঙ্গাবাজ তার শাক-সবজি ও ফলের বাগান ধ্বংস করিয়া তার বসত বাড়ী দখল করার চেষ্টাসহ তাকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে চলিয়া যায়। এতে তার বৃদ্ধ মা এবং পরিবারের লোকজন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।

 

 

আজকের স্বদেশ/জুয়েল