Logo

September 18, 2019, 5:53 am

সংবাদ শিরোনাম :

কানাইঘাটের আমিনাকে যৌতুকের কারণে স্বামীর অমানবিক নির্যাতন

কানাইঘাট(সিলেট)প্রতিনিধি::

কানাইঘাট উপজেলার বড়চতুল ইউপি’র কাদিরগ্রামের দরিদ্র আব্দুল মালিকের মেয়ে নব-বিবাহিতা আমিনা বেগমের উপর স্বামী তাজিম উদ্দিন যৌতুকের কারণে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানবিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

গুরুত্বর আহত অবস্থায় আমিনা বেগম (১৯) কে তার পিত্রালয়ের লোকজন বৃহস্পাতিবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল ১১ টার দিকে একটি ঘরে বাধাঁ অবস্থায় স্বামী কাজিম উদ্দিনের বাড়ি জৈন্তাপুর উপজেলার দরবস্ত ইউপি’র দরবস্ত দক্ষিণ গ্রাম থেকে উদ্ধার করে কানাইঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেন। নব-বিবাহিতা আমিনা বেগমের স্বজনরা জানান প্রায় বছরখানিক পূর্বে আমিনার সাথে দরবস্ত দক্ষিণ গ্রামের মৃত আমির আলীর পুত্র অট্রোরিক্সা সিএনজি চালক কাজিম উদ্দিনের বিয়ে হয়।

 

বিয়ের পর থেকে যৌতুকের দাবীতে বেশ কয়েক বার স্বামী সহ শ্বশুড়বাড়ির লোকজন আমিনাকে কয়েকবার অমানসিক নির্যাতন করে। আমিনার পিতা কানাইঘাটের কাদির গ্রামের দরিদ্র আব্দুল মালিক, মেয়ের সুখের চিন্তা করে যৌতুক বাবত মেয়ের জামাইকে একবার ৩০ হাজার টাকা প্রদান করেন। তার পরও বিভিন্ন সময় পিত্রালয় থেকে সিএনজি গাড়ি কিনার জন্য মোটা অংকের টাকা এনে দেওয়ার জন্য আমিনাকে নির্যাতন করে তার স্বামী তাজিম।

 

গত কয়েক দিন থেকে সিএনজি গাড়ী কিনার জন্য ১ লক্ষ টাকা পিত্রালয় থেকে এনে দেওয়ার জন্য আমিনার উপর নির্যাতন শুরু করে তার স্বামী। গত বুধবার রাত ১২ টার দিকে ১ লক্ষ টাকা যৌতুক এনে দেওয়ার জন্য আমিনাকে প্রচন্ড মারধর এক পর্যায়ে স্ত্রীকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার চেষ্টা করে কাজিম উদ্দিন।

 

এছাড়াও তাকে শরীরের বিভিন্ন স্থানে কাঠের রুল দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে আমিনাকে বসত ঘরের একটি কক্ষে রশি দিয়ে বেধেঁ রাখে পাশান্ড স্বামী তাজিম। এক পর্যায়ে কোনোমতে সুযোগ পেয়ে মোবাইল ফোনে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টার দিকে আমিনা বেগম তার নির্যাতনের বিষয়টি পিতা আব্দুল মালিককে জানালে তিনি মেয়েকে উদ্ধার করার জন্য জামাই তাজিম উদ্দিনের বাড়িতে ছুটে যান। সেখানে জামাইয়ের সাথে মেয়ের কথা জিজ্ঞাস করলে তাকেও মারধর করে কাজিম।

 

এক পর্যায় স্থানীয় ইউপি সদস্য নুর উদ্দিনের হস্তক্ষেপে আমিনাকে তার স্বজনরা সেখান থেকে উদ্ধার করে কানাইঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করেন। হাসপাতালে গিয়ে আমিনার উপর স্বামী কর্তৃক মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের চিত্র পাওয়া যায়। এ ঘটনায় আমিনার পিতা জৈন্তাপুর মডেল থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন।

 

 

 

 

আজকের স্বদেশ/আবু বকর