1. abubakarpressjp@gmail.com : Md Abu bakar : Md Abubakar bakar
  2. sharuarpress@gmail.com : admin520 : Md Gulam sharuar
  3. : alamin328 :
  4. jewela471@gmail.com : Jewel Ahmed : Jewel Ahmed
  5. ajkershodesh@gmail.com : Mdg sharuar : Mdg sharuar
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০২:৪৬ অপরাহ্ন
হেড লাইন
রানীগঞ্জ উন্নয়ন সংস্থা’র আজীবন দাতা সদস্যদের সম্মাননা স্মারক প্রদান মৌলভীবাজার কুলাউড়ায় ৫ টি প্রতিষ্ঠানকে ১৩ হাজার টাকা জরিমানা জগন্নাথপুরে বন্যায় পানিবাহিত রোগের প্রকোপ বাড়ছে স্বপ্নের ঢেউ সমাজ কল্যান সংস্থার নবগঠিত কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্টিত সুনামগঞ্জে বস্তা ভর্তি ত্রাণ পেয়ে খুশি সবাই মদ্যপান অবস্থায় গ্রেফতারের পর সাজা ভোগ প্রধান শিক্ষকের, সমালোচনা ঝড় ধলাই নদীর উৎসমুখ খনন ও সনাতন পদ্ধতিতে পাথর উত্তোলনের দাবি সুনামগঞ্জে বন্যায় সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত বেশি, দুর্ভোগ চরমে কোম্পানীগঞ্জে দুই প্রবাসীকে সংবর্ধনা এইচ এস সি ২০২৪ এর বিদায় ও রেটিন ২য় মেধা বৃওি পরীক্ষার পুরস্কার বিতরণী

নবীগঞ্জে পানিবন্দি শতাধিক পরিবার! অর্থনৈতিক অঞ্চলের হাজারো মানুষের দুর্ভোগ চরমে

  • Update Time : বুধবার, ২ মে, ২০১৮
  • ১০৪৫ শেয়ার হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি::

নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নে শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলে পানি নিষ্কাশন ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকার কারণে দ্বী-গড় ব্রাম্মণ গ্রাম,প্রকাশ(ঢালার পাড়) পারকুল এলাকাসহ আশপাশ এলাকার মানুষের চলাচলের রাস্তা,ঘর-বাড়ি গাছপালা, রাস্তাঘাট ও আশপাশ, সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি জমে যায়।

এতে করে পানি বন্দি হয়ে পড়েছেন শতাধিক পরিবার । হাঁটুপানি থেকে কোথাও কোথাও কোমর পানি পর্যন্ত হয়ে থাকে। এতে ওই এলাকার হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান হোসাইন কন্ট্রাকশন ও বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ(বেজা) সঙ্গে একাধিকবার এ বিষয়ে কথা হলেও তারা কর্নপাত করেনি। এতে করে গ্রামের লোকজন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন । এর ফলে পানি বন্দী অবস্থায় মানবেতর জীবনযাপন করছেন শতাধিক পরিবার ।

 

বিনষ্ট হচ্ছে ফসলি জমি,পুকুর ও মাছের ঘের সহ গ্রামের পরিবেশ। বাড়ছে নানা রোগব্যাধি শিশুরাও ভোগছে নানা পানি বাহিত রোগে। গ্রামের কয়েক লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগ করছেন গ্রামবাসী। সাধারণ জনগনের দূর্ভোগ দেখার যেন কেউ নেই? জানা যায়,উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের বিশাল এলাকাজুড়ে ও মৌলভীবাজার সদর থানাধীন শেরপুর শ্রীহট্ট অর্থনৈতিক অঞ্চলের কাজ চলমান রয়েছে । বছরের বারো মাস ওই এলাকার জনসাধারণকে থাকতে হয় পানিবন্দি হয়ে । সামন্য বৃষ্টি হলেই ঐঅঞ্চলের পানি গ্রামের দিকে প্রবাহিত হয়ে ডুবে যায় ফসলি জমি,রাস্তাঘাট, গাছপালা পুকুরের পাড়, এতে সাধারণ লোকজনের চলাচলে ব্যাপক দূর্ভোগ পোহাতে হয়।

 

আজ বুধবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কোমর পানিতে নেমে এক কৃষক ফসলের ধান কাটছেন । এছাড়াও ওই এলাকার বিভিন্ন বিভিন্ন খাল,ভরে গেছে বালি যার কারণে পানি নিষ্কাশন থমকে রয়েছে,পুকুরে সীমানা ভেঙ্গে গেছে,শাক-সবজির জমি তলিয়ে গেছে পানির নিচে,ওই এলাকার ঘরের চারিপাশে শুধুই পানি ।

এলাকাবাসীর অনেকেই অভিযোগ করে বলেন,সরকারের কাজে আমরা জমিজামা দিয়ে সহযোগীতা করেছিলাম অথচ দেখা যাচ্ছে আমাদেরকেই পানি বন্দি হয়ে থাকতে হয় । দ্রুত পানি নিষ্কাশন ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা করা না হলে আমাদের কয়েকটি গ্রাম পানির নিচে তলিয়ে যাবে ।

এব্যাপারে ওই এলাকার স্থানীয় ইউপি সদস্য সুমন আহমেদ বলেন অর্থনৈতিক অঞ্চলে উন্নয়ন কাজের পরিবর্তে গ্রামাঞ্চলের লোকজনের এই করুন অবস্থা কখনোই মেনে নেয়ার মত নয়,সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে তড়িৎ পদক্ষেপ না নিলে আমাদের এই এলাকা বৃষ্টির পানিতেই প্লাবিত হয়ে ঘরবাড়ি ছাড়তে হবে।

খালিক মিয়া বলেন, আমরা কিভাবে বেঁচে থাকতাম ঘর থাকি বাহির হলে শুধু পানি আর পানি । জাকির হোসেন নামে দ্বী-গড় ব্রাম্মণ গ্রামের এক যুবক বলেন ,সরকারের কাজে আমরা সাহায্য করেছি যার ফলে আজ আমরা পানি বন্দি থাকতে হচ্ছে দ্রুত প্রশাসনের এবিষয়ে নজর দিয়ে কার্যকরী প্রদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হাসানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এবিষয়ে খোঁজ-খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস প্রদান করেন ।

 

 

 

আজকের স্বদেশ/জুয়েল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024
Design and developed By: Syl Service BD