1. abubakarpressjp@gmail.com : Md Abu bakar : Md Abubakar bakar
  2. sharuarpress@gmail.com : admin520 : Md Gulam sharuar
  3. : alamin328 :
  4. jewela471@gmail.com : Jewel Ahmed : Jewel Ahmed
  5. ajkershodesh@gmail.com : Mdg sharuar : Mdg sharuar
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৭:৩৪ অপরাহ্ন
হেড লাইন
জগন্নাথপুরে ঈদুল আজহা উপলক্ষে ফ্রেন্ডস্ ক্লাবের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ বিশ্বনাথ মডেল প্রেসক্লাবের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান সোহেল চৌধুরীর মতবিনিময় সুনামগঞ্জে বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রানীগঞ্জ ইউনিয়ন ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন নর্থ-ওয়েষ্ট ইউকে’র অর্থায়নে নগদ অর্থ বিতরণ জগন্নাথপুরে ২০টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার ঘর পেল কোরবানী ঈদকে সামনে রেখে নবীগঞ্জে জমে উঠেছে পশুর হাট মৌলভীবাজারে প্রকাশ্যে গুলি করা রিপন কারাগারে বিরহী বাউল শিল্পী সুলতানা বেগম পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কমলগঞ্জে বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল সমাপনী অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জে যুব উন্নয়ন ও ওয়াল্ড ভিশনের যৌথ সভা

ফেসবুকে মৃত্যুর ভুয়া সংবাদ ও ভিসির বাড়িতে হামলাকারীদের চিহ্নিত করা হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • Update Time : মঙ্গলবার, ১০ এপ্রিল, ২০১৮
  • ৬২৬ শেয়ার হয়েছে

আজকের স্বদেশ ডেস্ক::

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসভবনে হামলাকারীরা ছাত্র কিনা সন্দেহ রয়েছে। এ ধরনের হামলা কখনোই ছাত্র সমাজের হতে পারে না। এখানে কোনো রাজনৈতিক দলের ইন্ধন রয়েছে। হামলাকারীদের কোনোভাবেই ছাড় দেয়া হবে না। গোয়েন্দা সংস্থার ভিডিও ফুটেজ দেখে তাদের চিহ্নিত করার কাজ চলছে। চিহ্নিত করার পর অবশ্যই মামলা হবে এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, ফেসবুকে পুলিশের হামলায় এক শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ভুয়া সংবাদ ছড়িয়ে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরতদের যারা উত্তেজিত করেছে তাদেরও শনাক্তের চেষ্টা হচ্ছে। এ ঘটনায় অবশ্যই ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে মামলা হবে। এ সময় সাংবাদিকরা ইমরান এইচ সরকারের নাম উল্লেখ করলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি কারো নাম বলছি না, আরো অনেকে থাকতে পারে। ইমরান এইচ সরকার একা কেন, তার সঙ্গে আরো কারা আছে তাদের শনাক্ত করা হচ্ছে। একজন যেটা প্রকাশ্যে এসেছে, সে তো এসেই গেছে। আরও যারা রয়েছে তাদের খুঁজে বের করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ফেসবুকে ‘মৃত্যুর গুজব’ প্রকাশকারীদের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা হবে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কাজ করছে।

গত রোববার কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শাহবাগ মোড় অবরোধ করে রাখা শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীদের পুলিশ রাবার বুলেট ও কাঁদুনে গ্যাস ছুড়ে সরিয়ে দেওয়ার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সংঘাত ছড়িয়ে পড়ে। এর মধ্যেই রাত ২টার মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করা হয়।

কোটা সংস্কারের আন্দোলন থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসায় হামলায় কারা জড়িত এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভিসির বাড়িতে হামলার ঘটনা নিন্দনীয়, জঘন্য। অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করার জন্যই এটি করা হয়েছে। তার পরিবারের লোকজন ভয়ে ঘর থেকে বের হয়ে বাগানে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন। ভিসিকে নানাভাবে নাজেহাল করা হয়েছে। সচেতন সমাজ এটি সমর্থন করতে পারে না। ভিসির বাড়ির সিসিটিভি ক্যামেরা ও মনিটর ভাঙচুর করেছে ও নিয়ে গেছে। তারপরও যা আছে এবং আপনাদের (সাংবাদিকদের) ক্যামেরা থেকে যা পাওয়া গেছে তা দেখে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে এখনো মামলা হয়নি। অবশ্যই মামলা হবে।

রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এই হামলা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে আসাদুজ্জামান খান বলেন, আমি তো বললাম এটা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে করা হয়েছে। কোনো ছাত্র এই হামলা করতে পারে না। তিনি বলেন, হামলায় কারা জড়িত তা শনাক্তে দেশের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থাসহ সরকারের সব বিভাগ কাজ করছে। এদের শনাক্ত করতে সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করবো। ভিসির বাড়ি, গাড়ি ও আসববাপত্র ভাঙচুর হয়েছে, খোয়া গেছে। মুখোশ পরে আগে মহিলা ও পরে পুরুষরা ঢুকেছে। আমি সারা রাত ঘুমাইনি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সব ইউনিটকে নির্দেশ দিয়েছি ভিসির বাড়িতে ঢোকার। তারাই এই তথ্য দিয়েছে। ছাত্ররা আন্দোলন করতেই পারে। আমরাও করেছি। কোনো ছাত্র এই কাজ করতে পারে না। কোনো রাজনৈতিক নেতাকর্মী এই কাজে জড়িত আছে কিনা, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। নিলক্ষেত প্রান্ত দিয়ে এসব সন্ত্রাসীরা ঢুকেছে। হাজার খানেকেরও বেশি মানুষ ঢুকেছে। যেকোনো রাজনৈতিক দলের সমর্থকরা এর সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারে। ছাত্ররা মুখোশ পড়বে কেন?

এ ঘটনায় ছাত্রলীগের একটি অংশের জড়িত থাকার গুজব প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি অনেকের সঙ্গে কথা বলে জেনেছি, কোনো ধরনের নাশকতার সঙ্গে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জড়িত নয়। ফেসবুকে ছাত্রলীগের নামে অপপ্রচার হয়েছে।

তিনি বলেন, যে ছেলেটির মৃত্যু সংবাদ ছড়ায়, সেই ছেলেটি পরবর্তীতে ফেসবুকে নিজের নাম পরিচয় দিয়ে ‘আমি মরিনি’ বলে যে স্ট্যাটাস দিয়েছে, এটি একটি ভালো কাজ। এই স্ট্যাটাস দেখার পর অনেকেই শান্ত হয়েছে। তিনি বলেন, ছাত্রদের যে দাবি, এই দাবিকে তারা যৌক্তিক মনে করছে। প্রধানমন্ত্রী এ ব্যাপারে অবগত। তার মুখে ‘নো’ বলে কোনো শব্দ নেই। মিথ্যা ভুয়া তথ্য দিয়ে ছাত্রদের উত্তেজিত করা হয়েছে।

 

 

আজকের স্বদেশ/জুয়েল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024
Design and developed By: Syl Service BD